বাগেরহাটে যৌতুক না পেয়ে স্ত্রীকে খুন

বাগেরহাট প্রতিনিধি:বাগেরহাটে যৌতুক না পেয়ে আমেনা বেগম রেশমা (২৫) নামে এক গৃহবধূকে মারপিট ও শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। হত্যাকাণ্ডের পর স্বামী আলামিন মোল¬াসহ তার পরিবারের অন্যরা পালিয়ে গেছে। সোমবার রাতে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।
এ ঘটনায় নিহত রেশমার পিতা মজিবুর রহমান বাদী হয়ে বগেরহাট মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। তবে পুলিশ এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। তবে এ মৃত্যু কোন ভাবে মেনে নিতে পারছেন রেশমার বাবা মজিবুর রহমান। তিনি মঙ্গলবার সকালে মর্গের সামনে মেয়ের শোকে বিলাপ করছেন।
নিহতের পরিবার ও এলাকাবাসী জানায়, ৬ বছর পূর্বে বাগেরহাট সদর উপজেলার ভাতছালা গ্রামের দিনমজুর মজিবুর রহমানের মেয়ে আমেনা বেগম রেশমাকে একই উপজেলার গোবরদিয়া গ্রামের সুলতান মোল¬ার ছেলে আলামিনের সঙ্গে বিয়ে দেয়া হয়। এরপর থেকে রেশমাকে যৌতুকের দাবিতে অত্যাচার নির্যাতন করতো। পাষণ্ড স্বামীর হাত থেকে রেশমা শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের রক্ষা পেতে দিনমজুর বাবার কাছ থেকে কয়েক দফা টাকা এনে দেয়। তাতেও স্বামীর মন রক্ষা করতে পারেনি রেশমা।
স্থানীয় ইউপি সদস্য মনিরুজ্জামান জানান, যৌতুকের এঘটনা নিয়ে দেড় মাসে শালিশ বৈঠক হয়েছে। কিন্তু যৌতুকের কারনে তাকে মারপিট করে হত্যা করা হবে এটা বুঝতে পারেনি। তিনি এঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি করেন।
বাগেরহাট মডেল থানার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই এনায়েত হোসেন জানান, দু’সন্তানের জননী রেশমার সাথে তার স্বামী আলামিনর যৌতুক নিয়ে প্রায় ঝগড়া বিবাদ হতো। সোমবার রাতে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়।