লিবিয়ায় মার্কিন দূতকে তলব

লিবিয়ায় মার্কিন কমোন্ডা অভিযান চালিয়ে সন্দেহভাজন আল কায়েদা নেতা আনাস আল লিবিকে আটকের ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে ত্রিপোলি।
লিবিয়ার বিচারমন্ত্রী সালাহ আল-মারঘানি সোমবার সকালে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত দেবোরাহ জোনসকে ডেকে পাঠান বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়। এর আগে লিবিয়া তাদের ভূখন্ডে যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ বাহিনীর অভিযানের জন্য ওয়াশিংটনের কাছে ব্যাখ্যা চেয়েছে।
লিবিয়ায় অনুপ্রবেশ করে লিবিকে অপহরণের অভিযোগ করেছে ত্রিপোলি।
তবে যুক্তরাষ্ট্র ওই অভিযানের পক্ষে সাফাই গেয়ে বলেছে, সন্দেহভাজন আল-কায়েদা নেতাকে ধরতে লিবিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের অভিযান বৈধ।
লিবিয়ার জঙ্গিরা এর বদলা নিতে ত্রিপোলিতে মার্কিন নাগরিকদের অপহরণ করাসহ গ্যাস পাইপলাইন, জাহাজ এবং বিমানে হামলার ডাক দিয়েছে।
গত শনিবার আফ্রিকার লিবিয়া ও সোমালিয়ায় ইসলামি জঙ্গিদের বিরুদ্ধে দুটি আলাদা অভিযান চালায় যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ বাহিনী নেভি সিল।
লিবিয়ার অভিযানে যুক্তরাষ্ট্রের কমান্ডোরা আল কায়েদার অন্যতম শীর্ষ নেতা আনাস আল লিবিকে আটক করে।
জিন্স নিয়ে নেতানিয়াহুর মন্তব্যে
ইরানি তরুণদের ব্যঙ্গ
কর্তৃপক্ষের নিষেধাজ্ঞার কারণে ইরানিরা জিন্স পরতে পারেন না, ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর এমন মন্তব্যের ব্যঙ্গাত্মক প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে ইরানি তরুণরা।
শুক্রবার বিবিসি’র পার্সি টেলিভিশনে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে নেতানিয়াহু বলেছিলেন, ইরানিরা স্বাধীন হলে তারা  জিন্স পড়বে, পশ্চিমা সংগীত শুনবে।
এর প্রতিক্রিয়ায় ইন্টারনেটের সামাজিক যোগাযোগ সাইটে ইরানে ও বিদেশে অবস্থানরত শত শত ইরানি তরুণ তাদের মতামত জানিয়েছেন।
এর অনেকগুলোতেই ইরানি তরুণরা জিন্স পরে আছেন ও পশ্চিমা সংগীত শুনছেন এমন ভিডিও ও ছবি পোস্ট করেছেন। কেউ কেউ জিন্স পড়ে ব্যাঙ্গাত্মক ভঙ্গীতে তোলা ছবিও পোস্ট করেছেন।

এদের কেউ কেউ প্রাচীন পারসিক ইতিহাসের প্রধান চরিত্রদের ডেনিম জিন্স পরিয়ে ব্যঙ্গাত্মক ছবি পোস্ট করেছেন।