বেনাপোলে কৃষকের লাশ উদ্ধার : স্ত্রীর অভিযোগ পিটিয়ে হত্যা

শেখ কাজিম উদ্দিন, বেনাপোল(যশোর): বেনাপোল সীমান্তের ভারত সংলগ্ন সাদিপুর গ্রামে বৃহস্পতিবার রাতে বুলু (৪০) নামে এক কৃষককের লাশ পাওয়া গেছে। তার মৃত্যু নিয়ে এলাকায় নানা জল্পনা কল্পনা চলছে। সে সাদিপুর গ্রামের আহম্মদের জামাই ও যশোরের খাজুরা এলাকার ওয়াদুদের ছেলে।
নিহতের স্ত্রী সেলিনা খাতুন জানান, তার স্বামী বুধবার বিকেলে কাজ করতে মাঠে যান। এসময় তার পায়ে একটি বান্ধা গরুর দড়ির খোটা জড়িয়ে যায়। এক সময় খুটা উপড়ে গরুটি পালিয়ে যায়।
পরে গরুর মালিক ও তার সঙ্গীরা গরু চুরির অভিযোগে বুলুকে পিটিয়ে সাদিপুর মাঠ পাড়া মসজিদের পাশে একটি বাগানে ফেলে রাখে। ওই দিন রাতে বুলু বাড়িতে ফিরে না আসায় অনেক খোঁজাখুঁজি করে তাকে পাওয়া যায়নি। পরে বৃহস্পতিবার সকালে অজ্ঞান অবস্থায় মসজিদের পাশ থেকে তাকে উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। টাকার অভাবে তাকে ডাক্তারের কাছে নেওয়া সম্ভব হয়নি। স্থানীয়ভাবে তার চিকিৎসা করা হয়। অবশেষে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১ টার দিকে তিনি মারা যান।
সেলিনা আরও জানান, মৃত্যুর আগে তার স্বামী তাকে কে কে মেরেছে এসব কথা জানিয়েছেন।
গ্রামবাসী জানান, নিহত বুলু পেশায় একজন কৃষক। পরের জমিতে দিন মজুরের কাজ করে তার সংসার চলতো। তার বিরুদ্ধে এলাকায় কোনো খারাপ অভিযোগ নাই। তবে সে প্রায়ই মদ্যপ অবস্থায় থাকত।
এ ব্যাপারে বেনাপোল পোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাইয়ুম আলী সরদার জানান, ঘটনাটি শোনার পর ঘটনা স্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। এ বিষয়ে নিহতের আত্মীয় তিন জনকে আসামি করে থানায় অভিযোগ করেছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। শুনেছি সে প্রায়ই নেশা করত। ময়নাতদন্ত রিপোর্টে পিটিয়ে হত্যার আলামত পেলে আসামিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে, তদন্তের স্বার্থে আসামিদের নাম গোপন রাখা হচ্ছে।