ব্রাজিলে পৌনে দুই লাখ টন চিনি পুড়ে ছাই

ব্রাজিলের বৃহত্তম বন্দর সান্তোসে অগ্নিকাণ্ডে ছয়টি গুদামে রক্ষিত ১ লাখ ৮০ হাজার টন চিনি পুড়ে গেছে। এতে বিশ্ববাজারে চিনির দাম এক বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ হয়ে গেছে। শুক্রবার স্থানীয় সময় ভোর ৬টার দিকে ব্রাজিলের বৃহত্তম চিনি কোম্পানি কোপারসুকারের মালিকানাধীন টার্মিনালে আগুনের সূত্রপাত হয়। গুদামে চিনির আনা-নেয়ার সিস্টেমে সূত্রপাত হওয়া আগুন কিছুক্ষণের মধ্যেই চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। পরবর্তী ছয় ঘন্টা দমকল কর্মীদের আপ্রাণ চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে বলে জানিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। আগুন লাগার কারণ খতিয়ে দেথা হচ্ছে। ব্রাজিল বিশ্বের বৃহত্তম চিনি রপ্তানিকারী দেশ। আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের অর্ধেক চিনির যোগানদাতা ব্রাজিল। বন্দর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ক্ষতিগ্রস্ত টার্মিনালটি ছাড়া অন্য চারটি টার্মিনালের স্বাভাবিক কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। সান্তোস বন্দরের ইতিহাসে এটিই সবচেয়ে বড় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা বলে জানিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ।
চলতি বছরের প্রথম আট মাসে এ বন্দর দিয়ে ১ কোটি ২৮ লাখ টন চিনি রপ্তানি করা হয়েছে। স্বাভাবিক চিনি রপ্তানির মাত্রা ধরে রাখার মতো যথেষ্ট বন্দর সুবিধা ব্রাজিলের আছে বলে জানিয়েছেন বিশ্লেষকরা। ফোলহা দে সাও পাওলো সংবাদপত্রকে চিনির বাজার বিশ্লেষক প্লিনিও নাসতারি বলেছেন, “এ ঘটনায় চিনি রপ্তানিতে সাময়িক বিঘ্ন ঘটবে, এটি জানা থাকায় চিনির আন্তর্জাতিক বাজারে প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে। কিন্তু অন্যান্য টার্মিনাল এ ঘাটতি পুষিয়ে দিতে পারবে।”