তেঁতুল হুজুরের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে হবে- তথ্যমন্ত্রী

স্পন্দন ডেস্ক: সরকারি কর্মকর্তাদের উদ্দেশে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, যারা সরকারি কর্মকর্তা আছেন তাদেরও তেঁতুল হুজুরের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে হবে। নিরপেক্ষতার ভান করে বসে থাকলে চলবে না।

সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর শেরে বাংলানগরে বাংলাদেশ বেতারের কার্যালয়ে দেশব্যাপী এফএম সম্প্রচার নেটওয়ার্ক প্রবর্তন (১ম) পর্যায়ে প্রকল্পের ১২টি ট্রান্সমিটার সম্প্রচারের উদ্বোধনকালে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, দেশকে উন্নত করতে হলে তেঁতুল হুজুরের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে ও সোচ্চার হতে হবে। তেঁতুল হুজুরদের বর্জন করে দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে হবে। কারণ জঙ্গিবাদ ও তেঁতুল হুজুর দেশকে পিছনে ঠেলে দেবে।

তথ্য প্রযুক্তি প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, আমরা যখন তথ্য প্রযুক্তিতে দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি। ঠিক তখনই তেঁতুল হুজুররা দেশকে পিছনের ‍দিকে নিয়ে যাচ্ছে। যুগে যুগে তেঁতুল হুজুররা মানুষকে ভ্রান্ত ধারণা দিয়েছে। যারা এখন সকাল বিকাল বক্তব্য দিচ্ছে তাদের আগে নিশ্চিত করতে হবে আগামীতে তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর বাংলাদেশ গড়তে হবে। ল্যাপটপের ব্যবহার শেখাতে হবে।

প্রকল্পের আওতায় বাংলাদেশ বেতারের ১০টি কেন্দ্রে স্থাপিত ১০ কিলোওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন ১২টি এফএম ট্রান্সমিটারের উদ্বোধন করা হয়। এতে বিনোদন, তথ্য প্রদান, শিক্ষা, তথ্য ও দেশ গঠনমূলক অনুষ্ঠান, জন্ম নিয়ন্ত্রণ ও পরিবার কল্যাণ, নারী উন্নয়ন, বয়স্ক শিক্ষা, মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ ও লালন, আবহাওয়া ও দুর্যোগকালীন পূর্বাভাস প্রচার করা হবে।

এছাড়া ৬৭টি সংবাদ প্রচারের মাধ্যমে বস্তুনিষ্ঠ তথ্য প্রবাহ ও ৬টি ভাষায় বর্হিবিশ্বের শ্রোতাদের নিকট ও দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করা হবে বলে মন্ত্রী জানান।

প্রকল্পে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ২৮ কোটি ৩২ লাখ টাকা। এই ট্রান্সমিটার দিয়ে বাংলাদেশের ৬৫ ভাগ জনগণ এফএম সুবিধা পাবে। ১২টি এফএম রেডিও দাঁড় করানোর জন্য সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জানান মন্ত্রী।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, রেডিওগুলোকে এফএম সেট তৈরি করতে হবে। এফএম ব্যান্ড রেডিও তৈরির জন্য উদ্যোগ নিতে হবে। বাংলাদেশ বেতারের জন্ম যেদিন বাংলাদেশের জন্ম সেইদিন। চট্রগ্রাম কালুরঘাট কেন্দ্র থেকে স্বাধীনতার ঘোষণা দেওয়া হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ বেতারের মহাপরিচালক কাজী আখতার উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন তথ্য মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মরতুজা আহমেদ