যশোরে সাব্বির হত্যা মামলার আসামি আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক:যশোরে কিশোর সাব্বির হত্যা মামলার আসামি আল আমিনকে আটক করেছে কোতোয়ালি থানা পুলিশ। সে শহরের বেজপাড়া টিবি ক্লিনিক এলাকার মৃত রইচ শিকদারের ছেলে। গত শনিবার রাতে এলাকা থেকে পুলিশ তাকে আটক করে। এ মামলায় তার আরও দু’ভাই জসিম ও আলো আসামি। গত ৪ অক্টোবর রাতে পুরাতন কসবা কাজীপাড়ার গোলামপট্টি এলাকার আব্দুল জলিলের ছেলে সাব্বিরুল হোসেন জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান দেখতে যায়। রাত ৮টার দিকে পূর্বশত্রুতার জেরে আল আমিন, জসিম, আলো, গাড়িখানা রোডের সেলিম পাটোয়ারির ছেলে বিল্লাল, ষষ্টিতলা পিটিআই রোডের রবিউল ইসলামের ছেলে রিমনসহ ৭/৮ জন ছুরিকাঘাতে জখম করে সাব্বিরকে। তাকে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে নেয়ার পর রাত ১১টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।
যশোরে বোমাসহ সন্ত্রাসী আটক
নিজস্ব প্রতিবেদক
নাশকতার পরিকল্পনাকালে যশোর কোতোয়ালি থানা পুলিশ শাহাদৎ হোসেন ওরফে লাইটো শাহাদৎ নামে এক সন্ত্রাসীকে বোমাসহ আটক করেছে। সে যশোর শহরের শংকরপুর চোপদারপাড়া বস্তির আব্দুল হকের ছেলে। এ সময় আরও তিন সন্ত্রাসী পালিয়ে যায়। এরা হলো দাঁত ভাঙা রনি, ট্যাবলেট সোহেল এবং গীট শামীম। কোতোয়ালি থানার এসআই শন্তু বিশ্বাস জানিয়েছেন, শনিবার রাত আড়াইটার দিকে রেলরোডস্থ শাহনাজ হোটেলের পেছনে আসামিরা নাশকতা সৃষ্টি করার জন্য ওঁৎপেতে ছিল। গোপন সূত্রে সংবাদ পেয়ে সেখানে অভিযান চালানো হয়। পুলিশ দেখে অন্যরা পালিয়ে গেলেও লাইটো শাহাদৎকে আটক করা হয়। পরে তার দেখিয়ে দেয়া স্থান থেকে দু’টি তাজা বোমা উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, আসামিরা সকলেই দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী। তাদের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে একাধিক মামলা ও অভিযোগ আছে।