দুটি ‘শত্রু’ বিমান ভূপতিত করেছে ভেনেজুয়েলা

আকাশসীমা লঙ্ঘণের দায়ে দুটি হাল্কা বিমানকে গুলি করে ভূপতিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ভেনেজুয়েলা। মাদক চোরাচালানের কাজে বিমান দুটি ব্যবহৃত হচ্ছিল বলে ধারণা দেশটির কর্তৃপক্ষের।
শনিবার বিমান দুটিকে ভূপতিত করা হয়ে বলে ভেনেজুয়েলার সরকারি কর্মকর্তাদের উদ্ধৃতি দিয়ে জানিয়েছে বিবিসি অনলাইন।
ভেনেজুয়েলার বলিভারিয়ান সশস্ত্র বাহিনী জানিয়েছে, চলতি মাসের প্রথমদিকে অবৈধভাবে আকাশসীমা ব্যবহার করা বিমানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার একটি আইনের আলোকে এ পদক্ষেপ নেয়া হয়। ওই আইন চালু হওয়ার পর মধ্যআকাশে কোনো বিমানকে গুলি করার এটিই প্রথম ঘটনা।
অক্টোবরের প্রথম দিকে আকাশপথ ব্যবহার সংক্রান্ত ওই আইনটি পাশ হওয়ার পর ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো আন্তর্জাতিক মাদক চোরাচালানীদের হুমকি দিয়ে বলেছিলেন, “ভেনেজুয়েলার আকাশে কোনো বিমান প্রবেশ করলে তাকে শান্তিপূর্ণভাবে মাটিতে নামিয়ে আনা হবে।”
‘সবুজ চা ও পেঁপে ডায়বেটিসের প্রতিষেধক’
সবুজ চা এবং গাঁজিয়ে ওঠা পেঁপে ডায়বেটিসের প্রতিষেধক হিসেবে কাজ করে।
সম্প্রতি মরিসাস বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োমেডিকেল এবং বায়োম্যাটেরিয়ালস গবেষণা প্রতিষ্ঠানের এক গবেষণায় এ তথ্য পাওয়া গেছে।
গবেষকদের একজন অধ্যাপক থিসান বাহরান বার্তাসংস্থা সিনহুয়াকে বলেন, “মরিসাসের সবুজ চা রক্তে সুগারের পরিমাণ বেড়ে যাওয়া আটকায়। আর গাঁজিয়ে ওঠা পেঁপে শরীরের প্রতিক্রিয়াশীল প্রোটিন সি এবং ইউরিক এসিডের পরিমাণ কমাতে সক্রিয়ভাবে সাহায্য করে।“
বাহরান আরো বলেন, গবেষণার এই ফলাফল খুব উল্লেখযোগ্য। কারণ এটা দেখিয়েছে কীভাবে চিকিৎসা হস্তক্ষেপ ছাড়াই ডায়বেটিস এবং হৃদরোগের মতো রোগের ঝুঁকি কমিয়ে আনা যায়।
গবেষণায় এরই মধ্যে ডায়বেটিকের প্রাথমিক পর্যায়ে পৌঁছে যাওয়া ৭৭ জনকে ১৪ সপ্তাহ ধরে খাবারের আগে তিনকাপ সবুজ চা পান করতে বলা হয়। অন্য ৭৮ জনকে শুধু তিনকাপ গরম পানি পান করতে দেয়া হয়।
এরপর সব অংশগ্রহণকারীর গ্লিসামিয়া এবং লিপিড রেট, ইমিউন সিস্টেম, লিভার এবং কিডনির কার্যকারিতা, প্রদাহ এবং শরীরে লৌহের বেড়ে যাওয়ার পরিমাণ পরীক্ষা করা হয়।
বাহরান বলেন, “আমরা আবিষ্কার করলাম যারা এরই মধ্যে ডায়বেটিকের প্রাথমিক পর্যায়ে পৌঁছে গেছে সবুজ চা তাদের শরীরের অ্যান্টি-অক্সিডেন্টকে শক্তিশালী করে। এছাড়া সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল চা তাদের শরীরে কোনো নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া ঘটায়নি।“
ডায়বেটিকের প্রাথমিক পর্যায়ে পৌঁছে যাওয়া অন্য ১২৭ জন ব্যক্তি গাঁজিয়ে ওঠা পেঁপের প্রভাব নিয়ে চালানো পরীক্ষায় অংশ নেন। তদের ৫০ জন ১৪ সপ্তাহ ধরে প্রতিদিন দুই প্যাকেট গাঁজিয়ে ওঠা পেঁপে খান। অন্যরা ওই সময়ে দুই গ্লাস গরম পানি পান করেন।
এরপর তাদের শরীরে গ্লিসেমিয়া, কলেস্টেরল, ইউরিয়া, ক্রিটিয়াটিনিন এবং ইউরিক এসিডের পরিমাণ পরীক্ষা করা হয়।
“সেখানে দেখা যায় যারা প্রতিদিন দুই প্যাকেট গাঁজিয়ে ওঠা পেঁপে খেয়েছেন তাদের শরীরে ডায়বেটিসের ঝুঁকি কমানোর ব্যাপারে ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে।“