নিষেধাজ্ঞার পরও মাঠে থাকার ঘোষণা মহিউদ্দিনের

অন লাইন ডেস্ক: নৈরাজ্য, নাশকতা ঠেকাতে ও গণতন্ত্র রক্ষায় চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা বৃহস্পতিবার থেকে মাঠে থাকবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন নগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সাবেক মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী।

বুধবার বিকালে নগর আওয়ামী যুবলীগ আয়োজিত ‍যুব সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ ঘোষণা দেন।

মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘মাঠের অনুমতি নিয়েছি। আগামীকাল থেকে আওয়ামী লীগ ও পেশাজীবী সংগঠনসহ সকল অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা মাঠে থাকবে। প্রথমে যুবলীগ দিয়ে শুরু হয়েছে। যারা গণতন্ত্র হত্যার চেষ্টা করছে তাদের মোকাবেলায় প্রতিটি ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে দু’টি করে ক্যাম্প স্থাপন করা হবে। ৪১টি ওয়ার্ডে ৮২টা ক্যাম্পে স্বাক্ষর অভিযান চলবে এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্টান চলবে। যাতে করে মানুষ নির্বাচনে উদ্বুদ্ধ হয়।’

মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘নির্বাচন যখন ঘনিয়ে আসছে কতিপয় কুচক্রী ও স্বার্থান্বেষী মহল নির্বাচন বানচালের জন্য মাঠে নেমেছে। নির্বাচন বানচাল করতে তারা অস্ত্রের হুমকি দিচ্ছে। যারা অস্ত্রের হুমকি দিচ্ছে তাদের কাছে গণতন্ত্রের শিক্ষা নেয়।’

মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘নির্বাচনে মানুষের আস্থা অর্জনের চেষ্টা না করে তারা দা-কুড়ালের হুমকি দিচ্ছে। এসব হুমকি ধমকি কিভাবে মোকাবেলা করতে তা আমাদের জানা আছে। নির্বাচনে অংশগ্রহন করলে জয়ী হতে পারবে না তাই তারা নির্বাচন বানচালের চেষ্টা করছে। দেশ ও চট্টগ্রামকে রক্ষায় যেকোন ধরণের ঝুঁকি নিতে আমরা প্রস্তুত আছি।’

তিনি বলেন, ‘প্রতিহিংসাপরায়ণ হয়ে তারা অশোভন কথাবার্তা বলছেন। জঙ্গিবাদের হুমকি দিচ্ছেন। দেশের মানুষকে মৌলিক অধিকার বঞ্চিত করার চেষ্টা করছেন। জঙ্গিবাদের হুমকি দিয়ে বাংলোদেশের মানুষকে দমন করা যাবে না।’

সাবেক মেয়র বলেন, ‘গণতন্ত্রের প্রতি আপনাদের শ্রদ্ধা নেই তাই নির্বাচন বানচালের চক্রান্তে লিপ্ত হয়েছেন। মাত্র ৩০টা আসন পেয়েছিলেন। সংসদে যাননি। লজ্জায় যাননি। হুমকি ধমকি না দিয়ে গণতন্ত্রকে শ্রদ্ধা করতে শিখুন। জাতি নির্বাচন বানচালের কোন চক্রান্ত মেনে নেবে না।’

মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘নির্বাচন হবে। নির্বাচনের পক্ষে যুব সমাজকে এগিয়ে আসতে হবে। প্রধানমন্ত্রী নির্বাচন নিয়ে যে পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে তা বাস্তবায়ন করতে হবে। গণতন্ত্র হত্যায় যারা লিপ্ত হয়েছে আগামী নির্বাচনে দেশের মানুষ তাদের প্রত্যাখান করে নৌকা প্রতীককে এগিয়ে নিয়ে যাবে।’

নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধ করে দেশ স্বধীন করেছি। আপনারাতো মুক্তিযুদ্ধ করেন নি। দালালি করেছেন। সুতরাং নৈরাজ্য ও নাশকতার মাধ্যমে চট্টগ্রাম ধ্বংসের চেষ্টা করা হলে যেকোন ধরণের ঝুঁকি নিয়ে তা রুখে দেওয়া হবে।’

নগর যুবলীগের আহবায়ক মহিউদ্দিন বাচ্চুর সভাপতিত্বে যুব সমাবেশে বক্তব্য রাখেন নগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক অ্যাডভোকেট ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুল, সাংগঠনিক সম্পাদক বদিউল আলম, যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ মাহমুদুল হক, সাবেক যুবলীগ নেতা চন্দন ধর, মশিউর রহমান, যুবলীগ নেতা দিদারুল আলম, মাহবুবুল আলম, দেলোয়ার হোসেন খোকা, আবদুল্লাহ আল মামুন।