২৫ অক্টোবর রাজপথ দখলে রাখতে প্রস্তুত খুলনা আওয়ামী লীগ

খুলনা ব্যুরো:২৫ অক্টোবর রাজপথ দখলে রাখতে সব ধরনের প্রস্তুতি নিচ্ছে খুলনা আওয়ামী লীগ। ১৮ দল কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনার জন্ম দেয়ার চেষ্টা করলে শক্ত হাতে জবাব দেয়ার জন্য নেতাকর্মীদের সর্বদা প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এমনটি দাবি দলটির শীর্ষ নেতৃবৃন্দের। তাছাড়া নগর যুবলীগ ডাকবাংলো মোড়ে সমাবেশ এবং জেলা যুবলীগ ৯ উপজেলার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ও নগরীর প্রবেশদ্বারে সমাবেশ করবে করবে বলে যুবলীগের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। যুবসমাজকে উজ্জীবিত রাখতে জেলা যুবলীগ মটর শোভাযাত্রারও আয়োজন করবে। আওয়ামী লীগের একাধিক দায়িত্বশীল সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।
২৪ অক্টোবর শেষ হচ্ছে আওয়ামী লীগ সরকারের মেয়াদ। ১৮ দলের দাবি তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন। আর সরকারি দল ক্ষমতায় থেকে নির্বাচন করার জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি নিচ্ছে। ইতিমধ্যে ১৮ দল বর্তমান সরকারের অধীনে নির্বাচনে না যাওয়ার জন্য চূড়ান্ত ঘোষণা দিয়েছে। বিরোধী দলীয় নেতার সংবাদ সম্মেলনে আরও পরিষ্কার হয়েছে বর্তমান সরকারের কোন প্রস্তাবে রাজি না হয়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনের ১ দফা দাবিতে ২৫ অক্টোবর কঠোর আন্দোলনে যাচ্ছে ১৮ দল। তবে যে কোন অপ্রিতিকর ঘটনা মোকাবেলা করতে খুলনা জেলা ও নগর আওয়ামী লীগ ব্যাপক প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে দাবি করেছেন দলটির একাধিক শীর্ষ নেতা। জেলা আওয়ামী লীগ ইতিমধ্যে ৯ থানার সকল নেতাকর্মীদের ডেকে ২৫ অক্টোবর একত্রিত হয়ে দলীয় কার্যালয়ে অবস্থান করার নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন জেলা সভাপতি শেখ হারুনুর রশিদ। ১৮ দল কোন প্রকার নাশকতার চেষ্টা করলে বা কোন বড় ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটালে রাজপথে তাদের প্রতিহত করার জন্য এসব নেতাকর্মীরা প্রস্তুত রয়েছে বলে তিনি জানান।
জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ প্রশাসক শেখ হারুনুর রশীদ আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ভাষনের মধ্য দিয়ে দেশের সকল উৎকন্ঠা কেটে গেছে। বিরোধী দল অহেতুক অন্যায় দাবি করে দেশে অরাজকতা সৃষ্টির চেষ্টা করছে। মহানগর আওয়ামী লীগ ২৪ ও ২৫ অক্টোবর দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ ও মিছিলের আহবান করেছে বলে জানিয়েছেন নগর আওয়ামী লেিগর সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মিজানুর রহমান মিজান। তাছাড়া নেতাকর্মীরাও প্রস্তুত থাকবে দলীয় কার্যালয়সহ নগরীর ৮ থানা এলাকায় বলে তিনি জানান।
এদিকে নগর যুবলীগ ২৫ অক্টোবর নগরীর ডাকবাংলো মোড়ে সমাবেশের ডাক দিয়েছে। তাছাড়া সকল নেতাকর্মী একত্রিত হয়ে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অবস্থান করবে বলে জানিয়েছেন নগর যুবলীগের আহবায়ক অ্যাড. আনিসুর রহমান। জেলা যুবলীগ ৯ উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ স্থানে সমাবেশ করবে। তাছাড়া নেতাকর্মীদের উজ্জীবিত করতে যুবলীগ সভাপতি কামরুজ্জামান জামালের নেতৃত্বে ওই দিন বিভিন্ন উপজেলায় মটর শোভাযাত্রার আয়োজন করা হয়েছে।
জেলা যুবলীগের সভাপতি কামরুজ্জামান জামাল বলেন, যুবলীগ নেতাকর্মীরা এখন থেকেই মাঠে রয়েছে। কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটাতে পারে সে জন্য সকল যুবলীগ নেতা তৈরি রয়েছে বলে তিনি জানান।
খুলনায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি
আইন বিষয়ক সভা অনুষ্ঠিত
খুলনা ব্যুরো
‘তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন : প্রেক্ষিত সুশাসন’ শীর্ষক আলোচনা সভা মঙ্গলবার বিকেলে খুলনা মহানগরীর বিএমএ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। ত্রৈমাসিক পত্রিকা খুলনার চিঠি এ আলোচনা সভার আয়োজন করে। পত্রিকার সম্পাদক কাজী মোতাহার রহমান বাবুর সভাপতিত্বে সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন প্রকাশক নূরুজ্জামান।
সভায় বক্তৃতা করেন, দৈনিক অনির্বাণ সম্পাদক অধ্যক্ষ আলী আহমেদ, এড. ফিরোজ আহমেদ, ড. জাকির হোসেন, হাসান আহমেদ মোল¬া, এরশাদ আলী, শেখ দিদারুল আলম, আলহাজ্ব আবু তৈয়ব, রেহেনা আখতার, অধ্যাপক ডাঃ সেখ  আখতার-উজ-জামান, মিজানুর রহমান বাবু, সোহরাব হোসেন, কেএম জিয়াউস সাদাত, এহতেশামুল হক শাওন, এইচ এম আলাউদ্দিন, হেদায়েত হোসেন মোল্ল¬া, মিজানুর রহমান মিল্টন, আবুল হাসান হিমালয়, আবু হেনা মোস্তফা জামান পপলু, সুমন্ত, মাহাবুব আলম বাদশা, এড. শেখ জাকিরুল ইসলাম, ব্যাংকার মাহবুবুর রহমান, মাহবুবুর রহমান মুন্না, জিএম রফিকুল ইসলাম, এম এ আজিম প্রমুখ।