মাশরাফির উচ্ছ্বাস, মাশরাফির প্রত্যয়

ক্রীড়া প্রতিবেদক:চোট কাটিয়ে অনেক দিন পর জাতীয় দলে ফিরে উচ্ছ্বসিত মাশরাফি বিন মুর্তজা। নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে জ্বলে উঠতে মরিয়া দেশের অন্যতম সেরা পেসার।
রোববার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ দলের অনুশীলনের ফাঁকে মাশরাফি বলেন, “তিন মাস কঠোর পরিশ্রম করেছি। দলে ফেরা আমার জন্য চ্যালেঞ্জিং ছিল। দশ মাস পর দলে ফিরে খুব ভালো লাগছে। চেষ্টা করবো নিজের সেরাটা দেয়ার।”
“লিগে মোহামেডানের হয়ে ৫/৬ টা ম্যাচ খেলেছি। এটা আমার জন্য খুব দরকার ছিল। অনেক দিন খেলার বাইরে ছিলাম। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেলার আগে ম্যাচ অনুশীলন আমার জন্য জরুরি হয়ে পড়েছিল। চার মাস ধরে নিজেকে প্রস্তুত করেছি। দেখা যাক সিরিজে কেমন করি!”
গত ফেব্রুয়ারিতে দ্বিতীয় বিপিএলের ফাইনালে চোট পাওয়ার পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেলা হয়নি মাশরাফির। ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে অবশ্য ভালোই পারফরম্যান্স। ৬ ম্যাচে ১৯.৪৫ গড়ে তার শিকার ১১ উইকেট।
২০১০ সালে ৫ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে নিউ জিল্যান্ডকে ৪-০ ব্যবধানে হারানো বাংলাদেশের ক্রিকেটের এক বিশাল অর্জন। তবে সেই সুখস্মৃতিকে পেছনে ফেলে এবারের সিরিজ নতুনভাবে শুরু করতে চান মাশরাফি।
তিনি বলেন, “অনুপ্রেরণা যোগালেও ঐ সিরিজ অনেক দিন আগে হয়েছে। এটা সম্পূর্ণ নতুন একটা সিরিজ। আমাদের তাই নতুন করে শুরু করতে হবে। নিজেদের সেরা ক্রিকেট খেলতে পারলে এবারো আমাদের পক্ষে সিরিজ জেতা সম্ভব।”
মাশরাফি আরো বলেন, “এই সিরিজকে স্পিনারদের সিরিজ বলা যাবে না। ফিল্ডিং বাধ্যবাধকতাবিহীন ৩৫ ওভারে বৃত্তের বাইরে চারজন ফিল্ডার রেখে বল করে স্পিনারদের সাফল্য পাওয়া খুব কঠিন। বিশ্বের সব জায়গাতেই স্পিনারদের এখন অনেক সংগ্রাম করতে হয়।”

“উইকেট যেমনই হোক, আমাদের দলের সবাই নিজেদের সেরাটা দেয়ার চেষ্টা করবে। ওয়ানডে ক্রিকেট বোলারদের জন্য অনেক বেশি চ্যালেঞ্জিং। আমরা পরিচিত কন্ডিশন কাজে লাগিয়ে ভালো করার চেষ্টা করবো।”