যশোরের রাজপথ থাকবে আওয়ামী লীগের নিয়ন্ত্রনে

নিজস্ব প্রতিবেদক:যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদার বলেছেন, যশোরের মাটি আওয়ামী লীগের ঘাঁটি, এখানে যুবলীগ নেতা শিমুলকে হত্যা করা হবে, সাধারণ মানুষের উপর হামলা, গাড়ি ভাঙচুর হবে আর বঙ্গবন্ধুর সৈনিকরা বসে থাকবে তা হবে না। আগামীকাল (আজ) থেকে যশোরের রাজপথ থাকবে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ তথা বঙ্গবন্ধুর সৈনিকদের নিয়ন্ত্রণে। বিঘ্ন সৃষ্টিকারী বিএনপি, জামায়াত শিবিরের কাউকে রাজপথ দখলে রাখতে দেয়া হবে না। গতকাল বিকেলে যশোর শহরের দড়াটানা ভৈরব চত্বরে সদর উপজেলা ও শহর যুবলীগের যৌথ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন তিনি। উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ওয়াহেদুজ্জামান বাবলুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হরতাল ও নৈরাজ্য বিরোধী এ সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা যুবলীগের সভাপতি মোস্তফা ফরিদ আহমেদ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টু, যুগ্ম সম্পাদক আজাহার হোসেন স্বপন, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা শফিকুল ইসলাম জুয়েল, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আরিফুল ইসলাম রিয়াদ, সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বিপুল, উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাকির হোসেন, ইছালী ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক  শরিফুল ইসলাম ও আরবপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আরিফ হোসেন বাবু। সমাবেশ পরিচালনা করেন শহর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম। বিকেল সাড়ে ৪টায় সমাবেশ শুরু হলেও ৩টার পর থেকে শহরের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে অসংখ্য মিছিল এসে সমবেত হয় ভৈরব চত্বরে। এক পর্যায়ে গোটা দড়াটানা চত্বর পরিপূর্ণ হয়ে যায় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীর পদভারে। সমাবেশে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার আরো বলেন, জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ যখন শান্তি এবং উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে। এমন সময় ৭১’র পরাজিত শক্তি জামায়াতকে সাথে নিয়ে নৈরাজ্য সৃষ্টি করছে, যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষা করতে বেগম জিয়া এক অজানা খেলায় মেতেছেন। তিনি বিরোধী দলের নেতা বেগম জিয়াকে প্রধানমন্ত্রীর আহবানে সাড়া দিয়ে আলোচনায় বসার আহবান জানান।