ঝিনাইদহে ও মাগুরার মহম্মদপুরে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল পালিত

স্পন্দন ডেস্ক:ঝিনাইদহে ও মাগুরার মহম্মদপুরে ১৮ দলের সকাল-সন্ধ্যা হরতাল পালিত হয়েছে। প্রতিনিধিদের পাঠানো বিস্তারিত খবর :
ঝিনাইদহ : ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডু উপজেলা ব্এিনপির সভাপতি ও দৌলতপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল হোসেন হত্যার প্রতিবাদে ১৮ দলের ডাকে বুধবার ঝিনাইদহ জেলায় সকাল-সন্ধ্যা হরতাল পালিত হয়। সহিংসতা এড়াতে সোমবার সন্ধ্যা থেকে হরিণাকুণ্ডু উপজেলার পৌর এলকায় অনিদৃষ্টকালের জন্য ১৪৪ ধারা জারি বলবৎ রয়েছে। এ  ছাড়া জেলা বিএনপি অফিসের সামনে এবং শহরের অলি-গলিতে অতিরিক্ত পুলিশ ও র‌্যাবসহ হরিণাকুণ্ডুতে ৩ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়। জেলার কোথাও কোন অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।
উল্লেখ্য, সোমবার দুপুরে বিএনপি নেতা আবুল হোসেন দৌলতপুর ইউনিয়ন পরিষদ থেকে মোটরসাইকেলযোগে মহারাজপুর গ্রামের বাড়ি ফিরছিলেন। তিনি হরিণাকুণ্ডুর দখলপুর বাজারের ব্রীজের উপর পৌঁছালে সন্ত্রাসীরা তাকে বোমা মেরে ও কুপিয়ে কুপিয়ে নৃসংশভাবে হত্যা করে। এ হত্যাকান্ডের ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে নিহতের ছেলে সাইদুর রহমান পান্নু বাদি হয়ে ২৪ জনের নাম উল্লেখ করে হরিণাকুণ্ডু থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছে। ##
কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) : হরতালের সমর্থনে কালীগঞ্জ বিএনপি বিক্ষোভ মিছিল ও পিকেটিং করে। উপজেলার নীমতলা বাসস্ট্যান্ড, মেইন বাসস্ট্যান্ড, ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক, খয়েরতলা,, কোটচাঁদপুর রোডের লাউতলা বাজার ও যশোর রোডে দুলালমুন্দিয়া বাজারে ১৮ দলীয় জোটের নেতাকর্মীরা খণ্ড খণ্ড মিছিল, সমাবেশ ও পিকেটিং করে বলে থানা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক হামিদুল ইসলাম হামিদ এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে।
মাগুরা : মহম্মদপুর উপজেলায় বিএনপির ডাকে সকাল সন্ধ্যা হরতাল পালিত হয়। মঙ্গলবার উপজেলার ধোয়াইল গ্রামে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মধ্যে সংঘর্ষ ঠেকাতে পুলিশের গুলিতে মারুফ নামে এক যুবক নিহত হয়। নিহত মারুফ যুবদল কর্মী দাবি করে জেলা বিএনপি মহম্মদপুরে সকাল সন্ধ্যা হরতালের ডাক দেয়। ফলে উপজেলায় দোকান ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল। যানবাহন চলাচল করেনি। বিএনপির উদ্যোগে শোক র‌্যালি বের করা হয়। বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা ও সাবেক মন্ত্রী অ্যাড. নিতাই রায় চৌধুরী ও জেলা বিএনপির সভাপতি কবির মুরাদের নেতৃত্বে হরতালের সমর্থনে মারুফ হত্যার প্রতিবাদে উপজেলা সদরে মিছিল বের হয়। ছাত্র লীগ কর্মীরা মিছিলকে ধাওয়া দেয়। ফলে মিছিলটি ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়।
জেলা বিএনপির সভাপতি কবীর মুরাদ জানান, তাদের মিছিলে ধাওয়া দেয়া কোন গণতান্ত্রিক পরিচয় নয়। তিনি এর তীব্র নিন্দা জানান।
এদিকে উপজেলা নিত্যানন্দপুর গ্রামে নিহত মারুফের জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। জানাযা শেষে তাকে দাফন করা হয়।