নান্নুর বাড়ি থেকে ৩ জনসহ আটক ৫

নিজস্ব প্রতিবেদক:আওয়ামী লীগ নেতা ও ব্যবসায়ী শেখ নজুরল ইসলামকে হত্যার পর অভিযান চালিয়ে মঙ্গলবার রাতে কোতোয়ালি থানা পুলিশ বোমাও বোমা তৈরির সরঞ্জামসহ ৫ জনকে আটক করেছে। এ ঘটনায় মোট ১৩ জনের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে মামলা হয়েছে। ধৃতরা হলো পূর্ববারান্দী মোল্লাপাড়া বাঁশতলা এলাকার রবিউল আলমের ছেলে হৃদয়, ইউসুফ আলীর ছেলে সুমন, শেখ আব্দুর রহমানের ছেলে মেহেদী হাসান শান্ত, খালধার রোডের জাকির ওরফে জেকের হোসেনের ছেলে সাজ্জাদ, নীলগঞ্জ সাহাপাড়ার আবুল কাশেমের ছেলে মহাসিন এবং পলাতক আসামিরা হলো বারান্দী মোল্লাপাড়া বাঁশতলা এলাকার লুৎফর রহমানের ছেলে মাসুদুর রহমান নান্নু, মাহফুজুর রহমান পান্নু, মাকসুদুর রহমান লাভলু, বাবু, পূর্ব বারান্দী পাড়ার বদর  উদ্দিনের ছেলে ডিম রিনপ, বান্দাজ ড্রাইভারের ছেলে মিন্টু, আরএন রোডস্থ রাঙামাটি গ্যারেজের পাশে মোসলেম উদ্দিনের ছেলে শিপন ওরফে লম্বা রিপন এবং সিটি কলেজপাড়ার মৃত সোবহানের ছেলে মোমিন। এজাহারে এসআই শোয়েব উদ্দিন আহমেদ উল্লেখ করেছেন, ঢাকা রোড তালতলা এলাকায় নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সামনে সন্ত্রাসীদের বোমা হামলায় গুরুতর আহত হন শেখ নজরুল ইসলাম। এরপর মোল্লাপাড়া এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী নান্নুর বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ৫ জনকে আটক করা হয়। সেখান থেকে ৩টি বোমা, ২ কেজি পরিমাণ জালের কাটি, আধা কেজি গান পাউডার ও ৪টি খালি জর্দার কৌটা উদ্ধার করা হয়েছে। অভিযানের সংবাদ পেয়ে নান্নুসহ অন্যরা পালিয়ে যায়।