শরণখোলায় ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী গ্রেফতার

বাগেরহাট প্রতিবেদক : বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী হাসানুজ্জামান পারভেজকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার দুপুরে উপজেলার চালিতাবুনিয়া এলাকায় গণসংযোগকালে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে সরাসরি বাগেরহাট আদালতে নিয়ে যায়।

হাসানুজ্জামান পারভেজ উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

পুলিশ সূত্র জানায়, গত ২১ ফেব্রুয়ারি রাতে আওয়ামী লীগের দুই প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে মারামারির ঘটনায় পারভেজকে ১ নম্বর আসামি করে শরণখোলা থানায় একটি মামলা দায়ের হয়। রোববার ওই মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়।

এদিকে, এ ঘটনার প্রতিবাদে সোমবার উপজেলা আওয়ামী লীগ বিক্ষোভ কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছে। এ ঘটনার জের ধরে শরণখোলার রাজনৈতিক পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। যে‍কোনো সময় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা রয়েছে।

অপরদিকে, পারভেজের গ্রেফতারের খবরে প্রতিবাদে ফেটে পড়ে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। ঘটনার পর পরই উপজেলা সদর রায়েন্দা বাজারে বিক্ষোভ মিছিল শেষে আওয়ামী লীগ অফিস চত্বরে প্রতিবাদ সমাবেশে অনুষ্ঠিত হয়।

এতে বক্তব্য দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এম এ রশিদ আকন, আওয়ামী লীগ নেতা শাহজাহান বাদল জমাদ্দার, মহিউদ্দিন খান, হাফিজ হাওলাদার, যুবলীগ নেতা আজমল হোসেন মুক্তা, ছরোয়ার তালুকদার, ছাত্রলীগ নেতা সুমন আকন, হাসান মীর প্রমুখ।

এ সময় বক্তারা পারভেজের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে অবিলম্বে তার মুক্তির দাবি জান‍ান।

এ ব্যাপারে পারভেজ অভিযোগ করে বলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এমপি ডা. মোজাম্মেল হোসেনের নির্দেশে তার বিরুদ্ধে মামলা দেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুস ছালেক বাংলানিউজকে জানান, নিরাপত্তা ও ঝামেলা এড়াতে পারভেজকে গ্রেফতারের পর সরাসরি আদালতে পাঠানো হয়েছে।