সংরক্ষিত নারী আসনের তফসিল ঘোষণা

স্পন্দন ডেস্ক:২৯ মার্চ ভোটের দিন রেখে দশম  সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনের তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন, যদিও দল ও জোটগতভাবে আসন বরাদ্দ হচ্ছে বলে ১২ মার্চই জানা যাবে- কারা যাচ্ছেন সংসদে।
প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ রোববার এই তফসিল ঘোষণা করেন।
একইসঙ্গে টাঙ্গাইল-৮ আসনের উপ নির্বাচন ২৩ মার্চ থেকে পিছিয়ে ২৯ মার্চ নেয়া হয়েছে।
সিইসি জানান, সংরক্ষিত নারী আসনের  জন্য রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময় ৪ মার্চ। ৬ মার্চ যাচাই বাছাইয়ের পর ১২ মার্চ পর্যন্ত মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করা যাবে। ভোটের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে ২৯ মার্চ।
ইসি কর্মকর্তারা বলছে, ভোটের জন্য একটি দিন রাখা হলেও ফল জানা যায় তার আগেই। ৫০টি সংরক্ষিত নারী আসনের বিপরীতে দল ও জোটগতভাবে সমান সংখ্যক প্রার্থী মনোনয়ন দেয়া হবে বলে  প্রত্যাহারের সময়সীমা পার হওয়ার দিনই তাদের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হতে পারে।
তফসিল ঘোষণার আগে দশম সংসদের দল ও জোটভিত্তিক ভোটার তালিকা প্রকাশ করেছে ইসি।
কমিশনের যুগ্ম সচিব জেসমিন টুলিকে এ নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তা এবং উপ সচিব মিহির সারওয়ার মোর্শেদকে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।
ইতোমধ্যে দলগুলো মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাতকারও নিয়ে নিয়েছে। সংসদে প্রতিনিধিত্বের আনুপাতিক হার অনুযায়ী আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন জোট সংরক্ষিত আসনের মধ্যে ৪১টি পাবে। এছাড়া বিরোধী দল জাতীয় পার্টি ছয়টি ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের জোট পাবে তিনটি আসন।
দশম সংসদের ৩০০ সংসদীয় আসনের মধ্যে আওয়ামী লীগ ২৩৪, জাতীয় পার্টি ৩৪, ওয়ার্কার্স পার্টি ৬, জাসদ ৫, জেপি ২, তরিকত ফেডারেশন ২, বিএনএফ ১ ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা ১৬টি আসন পান।
এছাড়া যশোর-১ ও যশোর-২ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা জয়ী হলেও আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ থাকায় ফলাফলের গেজেট এখনো প্রকাশ করেনি ইসি।
এছাড়া গত ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার পর ২০ জানুয়ারি হৃদরোগে মারা যান আওয়ামী লীগ নেতা শওকত মোমেন শাহজাহান।
গত ৯ ফেব্রুয়ারি আওয়ামী লীগ ইসিকে জানায়, সংসদে প্রতিনিধিত্বকারী আরো পাঁচটি দলকে নিয়ে নারী আসনের জন্য জোট করছে তারা।
জাতীয় সংসদ (সংরক্ষিত মহিলা আসন) নির্বাচন আইন ২০০৪ অনুযায়ী, সংসদে আনুপাতিক প্রতিনিধিত্ব পদ্ধতিতে প্রতি আসনের বিপরীতে সংরক্ষিত আসন দাঁড়ায় শূন্য দশমিক ১৬৭টি।
দশম সংসদের প্রথম অধিবেশন শুরু হয়েছে গত ২৯ জানুয়ারি। ফেব্রুয়ারিতেই সংরক্ষিত আসনের সাংসদরা নির্বাচিত হলে এ অধিবেশনেই নতুন সদস্যদের যোগ দেয়ার সুযোগ হতে পারে।
শওকত মোমেন শাহজাহানের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া টাঙ্গাইল-৮ আসনের উপ নির্বাচনের জন্য এর আগে ২৩ মোর্চ তারিখ দেয়া হলেও একই দিনে উপজেলা নির্বাচন থাকায় আইন-শ্খৃলা রক্ষার সুবিধার জন্য তার পিছিয়ে দেয়া হয়েছে বলে ইসি কর্মকর্তারা জানান।

মণিরামপুর উপজেলা নির্বাচনে
আওয়ামী জোটের একক প্রার্থী
ঘোষণা
নিজস্ব প্রতিবেদক, মণিরামপুর
মণিরামপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ জোট একক প্রার্থী ঘোষণা করেছেন। গতকাল দলের তৃণমূল কাউন্সিলর মতামতের ভিত্তিতে সন্ধ্যায় চূড়ান্ত প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেন। ঘোষিত প্রার্থীদের মধ্যে চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক আমজাদ হোসেন লাভলু, ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি এম.এ হালিম ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী নাজমা খানম।  বিকেলে দলীয় কার্য্যালয়ে কাউন্সিলরদের নিয়ে প্রার্থী নির্বাচন সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠিত সভার সভাপতিত্ব করেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য অধ্যপক ফজলুর রহমান। সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, সংসদ সদস্য স্বপন ভট্টাচার্য্য চাঁদ। অনুষ্ঠানের সার্বিক পরিচালনা করেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা।