যবিপ্রবিতে দু’কর্মকর্তার হাতাহাতি

বিল্লাল হোসেন:যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের দু’কর্মকর্তার মধ্যে হাতাপাতি হয়েছে। তারা এ ঘটনা অস্বীকার করেছেন। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে এ ঘটনা ঘটে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির খবর বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। সাংবাদিকদের তথ্য দেয়ার ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা হায়াতুজ্জামান মুকুল ও সেকশন কর্মকর্তা হেলাল উদ্দিন একে অপরকে দোষারোপ করে থাকেন। মঙ্গলবার দুপুরে তারা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে এ ঘটনা নিয়ে তর্কবিতর্কের এক পর্যায়ে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েন। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন কর্মকর্তা-কর্মচারী তাদের শান্ত করেন। বিশ্ববিদ্যালয় সুত্র জানিয়েছে, বিষযটি নিষ্পত্তি করার লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ তাৎক্ষণিক আলোচনায় বসেন। জনসংযোগ কর্মকর্তা হায়াতুজ্জামান মুকুল ও সেকশন কর্মকর্তা হেলাল উদ্দিনের হাতাহাতির ঘটনায় ব্যাপক তোলপাড়ের সৃষ্টি হয়। বর্তমানে এ দু’কর্মকর্তাকে নিয়ে নানা আলোচনা সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে। তবে হাতাহাতির ঘটনাটি চাপানোর চেষ্টা করছেন এ দু’কর্মকর্তা। তারা বলেছেন, এ ধরণের কোন ঘটনা ঘটেনি। মিথ্যা কথা রটানো হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. আহসান হাবীব দৈনিক স্পন্দনকে জানিয়েছেন ওই দু’কর্মকর্তার মধ্যে সামান্য বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটির ঘটনা ঘটেছিল।