যশোরে জবেদা হত্যায় আটক তিনজন রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক:যশোরের সরকারি কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের প্রশিক্ষক জবেদা বেগম হত্যা মামলায় আটক তিনজনকে দুইদিন করে রিমান্ডে নিয়েছে রেলওয়ে পুলিশ। আসামিরা হলো, শহরের বেজপাড়ার রশিদুল ইসলাম ও তার স্ত্রী পিয়ারী বেগম এবং মৃত নুরু মোল্যার ছেলে লিটন মোল্যা। মঙ্গলবার মামলার শুনানি শেষে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (২য়) আদালতের বিচারক মারুফ আহমেদ এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন। মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ১৬৯ ডিসেম্বর শহরের বেজপাড়ার স্বামীর বাসা থেকে নিখোঁজ হয় জবেদা বেগম। স্বামী জয়নাল আবেদিন আত্মীয় স্বজনদের জানায় জবেদা গহনা টাকা পয়সা নিয়ে পালিয়ে গেছে। ২১ ডিসেম্বর ডিসেম্বর রাতে শংকরপুরের রেললাইনের উপর থেকে অপরিচিত এক মহিলার বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করে স্থানীয়রা। কয়েকদিন পর সংবাদ পেয়ে জবেদা বেগমের লাশের ছবি দেখে সনাক্ত করে স্বজনেরা। এর মধ্যে রেলওয়ে পুলিশ বাদি হয়ে হত্যা মামলা করেন। এরপর পুলিশ হত্যার সাথে জড়িত সন্দেহে সতীন ও কাজের মহিলাকে আটক করে। পরবর্তীতে পুলিশ নিহত জবেদা বেগমের হারিয়ে যাওয়া মোবাইলপোন ট্যাংকিং করে ওই তিনজনকে আটক করে। আটক তিনজনের পাঁচদিন করে রিমান্ড চেয়ে আদালতে সোপর্দ করে। গতকাল মামলার শুনানি শেষে বিচারক প্রত্যেক আসামির দুইদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।