যশোরে জামায়াত নেতা আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক:যশোর কোতোয়ালি থানা পুলিশ গতকাল বুধবার বিকেলে জামায়াত নেতা আব্দুল হান্নানকে আটক করেছে। তিনি সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুর ইউনিয়ন জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি এবং মথুরাপুর গ্রামের আব্দুল আজিজ ওরফে আজিজ রাজাকারের ছেলে।
কোতোয়ালি থানার ওসি এমদাদুল হক শেখ বলেছেন, বুধবার বিকেলে যশোর সদর উপজেলা অফিসের সামনে থেকে তাকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে হরতাল-অবরোধে গাড়ি ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগ আছে।
যশোরে গুলিবিদ্ধ রনিসহ
৫ সন্ত্রাসীর বিরুদ্ধে
মামলা
নিজস্ব প্রতিবেদক
যশোর শহরের চোপদারপাড়া হ্যাচারি এলাকায় পুলিশকে লক্ষ্য করে বোমা হামলার ঘটনায় কোতোয়ালি থানায় মামলা হয়েছে। থানার এএসআই ইসরাফিল হোসেন পাঁচ সন্ত্রাসীকে অভিযুক্ত করে মামলাটি করেছেন। আসামিরা হলো আশ্রমরোড এলাকার রুহুল ওরফে রং রহুলের ছেলে গুলিবিদ্ধ রনি ওরফে দাঁত ভাঙ্গা রনি, একই এলাকার আব্দুল আলীমের ছেলে আকাশ, চোপদারপাড়ার আলী আহমেদের ছেলে, রহিম ওরফে ভাজা রহিম, হারানের বস্তির মৃত হারান আলীর দু’ ছেলে হজর আলী ও জোহর আলী, এবং চোপদারপাড়া আকবরের মোড় এলাকার মনিরুজ্জামানের ছেলে সন্ত্রাসী বাহিনী প্রধান ইয়াছিন।
এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, সন্ত্রাসী ইয়াছিন বাহিনী তার প্রতিপক্ষ বাহিনীর সাথে মঙ্গলবার বিকেলে বোমা অস্ত্র নিয়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া করে। সন্ত্রাসী দাঁত ভাঙ্গা রনি চোপদারপাড়া হ্যাচারির কাছে বোমা নিয়ে বসেছিলো। সে সময় পুলিশ সেখানে গেলে রনি পুলিশকে লক্ষ্য করে ৪/৫ টি বোমা ছুড়ে মারে। বোমার স্পি­ন্টারের আঘাতে দু’ পুলিশ কনস্টেবল আহত হন। এ সময় পুলিশ সন্ত্রাসীদের ছত্রভঙ্গ করতে ৭টি গুলি ছুড়ে মারে। একটি গুলি দাঁত ভাঙ্গা রনির বাম পায়ে বিদ্ধ হয়। তাকে সাথে সাথে আটক করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বাকিরা পালিয়ে যায়।  পুলিশ আরো জানিয়েছে, বাহিনী প্রধান সস্ত্রাসী  ইয়াছিন চোপদারপাড়া আকবরের মোড়, নাজিরশংকরপুর, বেজপাড়া কবরস্থান রোড, আশ্রম রোড, আনসারক্যাম্প এলাকাসহ আশেপাশের এলাকার ছিনতাই, চাঁদাবাজি, ডাকাতি, বোমাবাজিসহ নানা সন্ত্রাসী কার্যক্রম করে বেড়ায়।