যশোরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পুল শিক্ষক নিয়োগ কার্যক্রম সফল হয়নি

মিরাজুল কবীর টিটো:
যশোরের প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে পুল শিক্ষক নিয়োগ কার্যক্রম সফল হয়নি। পুল শিক্ষক পদে ১৪৯ জনকে নিয়োগ দেয়া হলেও যোগদান করেছেন মাত্র ৭১ জন। এতে করে প্রাথমিক স্তুরের পাঠদান কার্যক্রম বিঘ্ন ঘটছে। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্র জানায়, মাতৃ চিকিৎসা জনিত, হজব্রত, ডিপিএড ও প্রশিক্ষণের জন্য শিক্ষকরা ছয় মাস ছুটিতে যান। বিদ্যালয়ের শিক্ষক পদ শুন্য হয়ে যায়। তখন পাঠদানের বিঘ্ন ঘটে। তাই শিক্ষা মন্ত্রণালয় ওই সময়ের জন্য পুল শিক্ষক নিয়োগের কার্যক্রম শুরু করে গত বছরের মে মাসে। মেধার ভিত্তিতে ওই সময় যশোর জেলায় ১৪৯ জন শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হয়। তবে যোগদান করেছেন ৭১ জন শিক্ষক। এর মধ্যে সদর উপজেলায় নিয়োগকৃত ১৮ জন শিক্ষকের স্থলে যোগদান করেন ৫ জন, শার্শায় ৪৮ জনের স্থলে যোগদান করেন ২০ জন, মণিরামপুরে ১৯ জনের স্থলে যোগদান করেন ৬ জন, বাঘারপাড়ায় ১৯ জনের স্থলে যোগদান করেন ৩ জন, চৌগাছায় ২৯ জনের স্থলে যোগদান করেন ১৫ জন, কেশবপুরে ১১ জনের স্থলে যোগদান করেন ৭ জন, ও অভয়নগরে ১৬ জনের স্থলে যেগাদান করেন ৭ জন শিক্ষক। বাকি শিক্ষকরা যোগদান না করায় প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষক পদ শুন্য রয়েছে। পাঠদানের ব্যাঘাত ঘটছে বলে অনেক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জানান। এ ব্যাপারে যশোর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার তাপস কুমার অধিকারী জানান সুন্দরভাবে পাঠদানের লক্ষ্যে পুল শিক্ষক নিয়োগ কার্যক্রম শুরু করা হয়। শিক্ষক নিয়োগ দেয়ার পর যারা যোগদান করেননি। তারা আর কোনো দিন আবেদন করলেও পুল শিক্ষক পদে নিয়োগ পাবেন না। যারা যোগদান করেছেন পর্যায়ক্রমে তাদের পুল শিক্ষক পদে নিয়োগ দেয়া হবে।