মহেশপুরে শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার ঘটনা ৪০ হাজারে রফা

নিজস্ব প্রতিবেদক, মহেশপুর:
মাত্র সাড়ে ৩ বছরের এক শিশু কন্যাকে আম খেতে দেয়ার কথা বলে ঘরের মধ্যে ডেকে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে গোপাল হালদার। ঘটনাটি ঘটে ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী সলেমানপুর গ্রামে। পরে ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হলে ইউপি সদস্য আনারুল মেম্বারের নেতৃত্বে গ্রাম্য শালিসে ৪০ হাজার টাকায় রফা করা হয়েছে।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, মহেশপুর উপজেলার সলেমানপুর গ্রামের সাড়ে ৩ বছরের এক শিশু কন্যাকে আম খেতে দেয়ার কথা বলে ঘরের মধ্যে ডেকে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে সলেমানপুর গ্রামের ঝন্টু হালদারের ছেলে নরপশু গোপাল হালদার।
নাম না প্রকাশে এক প্রতিবেশী জানান, গত ৩ দিন পূর্বে সন্ধ্যার দিকে প্রতিবেশী সাড়ে ৩ বছরের এক শিশুকে গোপাল হালদার ডেকে নিয়ে যায় নিজ ঘরে। পরে ওই শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা করলে শিশুর চিৎকারে তার মা টের পেয়ে যায়। পরে ওই শিশুকে তার মা উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে আসলে ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হয়ে যায়। পরে অবস্থা বেগতিক দেখে তড়িঘড়ি করে লম্পট গোপাল হালদার নেপা ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য আনারুল ইসলামকে ডেকে নিয়ে ৪০ হাজার টাকায় মীমাংসা করিয়ে নেন।
ইউপি সদস্য আনারুল মেম্বার মুঠোফনে জানান, মেয়েটিকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছিল। তাই আমি গোপাল হালদারকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করেছি।
মহেশপুর থানার অফিসার ইনচার্জ শাহিদুল ইসলাম শাহিন জানান, বিষয়টি আমার জানা নেই, তবে কেউ যদি অভিযোগ করে তাহলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।