১২ জন তথ্য কল্যাণীর হাতে ঋণের চেক তুলে দিল ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড

নিজস্ব প্রতিবেদক:
গতকাল রোববার সকালে ১২ জন তথ্য কল্যাণীর হাতে ঋণের চেক তুলে দিয়েছে ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড। বেসরকারি সংস্থা ডিনেটের আয়োজনে যশোরের একটি এনজিও’র সেমিনার রুমে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাদের কাছে ঋণের চেক তুলে দেন বাংলাদেশ ব্যাংকের এসএমই এবং স্পেশ্যাল প্রোগ্রাম ডিপার্টমেন্টের জেনারেল ম্যানেজার স্বপন কুমার রায়।
ডিনেটের চেয়ারম্যান ও বিআইবিএমের মহাপরিচালক ড, তৌফিক আহমেদ চৌধুরির সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেডের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দমোহাম্মদ বারিকুল্লাহ, বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল রাইস রিসার্চ ইন্সটিটিউটের চিফ অফ পার্টি তিমোথি রাসেল, ডিনেটের যুগ্ম পরিচালক অজয় কুমার বসু, ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড যশোর শাখার ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ ফরহাদ উদ্দিন, ওয়ান ব্যাংক যশোর শাখার ব্যবস্থাপক আবু সাঈদ মোহাম্মদ আবদুল মান্নাফ, ডিনেটের যশোর আঞ্চলিক অফিসের ব্যবস্থাপক উজ্জ্বল কুমার বালা প্রমুখ।
প্রধান অতিথি বাংলাদেশ ব্যাংকের এসএমই এবং স্পেশ্যাল প্রোগ্রাম ডিপার্টমেন্টের জেনারেল ম্যানেজার স্বপন কুমার রায় বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংক প্রথম থেকেই তথ্যকল্যাণী মডেলের সাথে ছিল। তথ্যকল্যাণীদেও দ্বারা গ্রামের প্রান্তিক মানুষ শিক্ষা, স্বাস্থ্য, চিকিৎসাসহ বিভিন্ন সেবা পাবেন। বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্ণরের দিকনির্দেশনা অনুযায়ী ন্যাশনাল ব্যাংক স্বতন্ত্র ঋণ কার্যক্রম গ্রহন করেছে। আগে তারা ৩৭ জন তথ্যকল্যাণীকে ঋণ দিয়েছে। আশা করি অন্যান্য ব্যাংকও এতে উৎসাহিত হবেন।
অনুষ্ঠানের সভাপতি বিআইবিএমের মহাপরিচালক ড, তৌফিক আহমেদ চৌধুরি বলেন, তথ্যকল্যাণীরা প্রান্তিক জনগোষ্ঠী থেকে উঠে এসেছে। তারা তথ্যসেবার সাথে সম্পর্কিত বিভিন্ন সেবা ও পন্য প্রদান কওে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নে সহায়তা কওে থাকে। এর আগে ৫টি জেলার ৫০ জন তথ্যকল্যাণী গড়ে তোলা হয়েছে। যশোওে ১২ জন দিয়ে এই সংখ্যা দাঁড়ালো ৬২। ২০২০ সালের মধ্যে প্রতিটি ইউনিয়নে কমপক্ষে দু’জন করে তথ্যকল্যাণী তৈরির কাজ আমরা হাতে নিয়েছি। #