যবিপ্রবি’র‘ধর্ষিতা’ ছাত্রীর মেডিকেল পরীক্ষা

নিজস্ব প্রতিবেদক:
যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগের সত্যতা নির্ণয়ে জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসকদের নিয়ে একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। মেডিকেল বোর্ড কথিত ছাত্রীর ধর্ষণ সংক্রান্ত আলামত সংগ্রহ করেছে।

গঠিত মেডিকেল বোর্ডের প্রধান হিসেবে নিযুক্ত করা হয়েছে ডা. আলমগীর কবিরকে। আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে পরীক্ষার রিপোর্ট সংশ্লিষ্ট দপ্তরে দেওয়া হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

শনিবার মেডিকেল বোর্ডের সদস্য ডা. লাইলা নার্গিস ধর্ষিতার শরীর থেকে আলামত সংগ্রহ করেন। পরে পরীক্ষা- নিরীক্ষার জন্য তা ল্যাবে নেওয়া হয়।

বোর্ডের প্রধান ডা. আলমগীর কবির জানান, পুলিশের আবেদন পেয়ে ধর্ষিতার আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে। নির্ধারিত সময়ে প্রতিবেদন দেওয়া হবে।

যবিপ্রবির পুষ্টি ও খাদ্যবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক সৈয়দ মাহফুজ আল হাসানের বিরুদ্ধে শুক্রবার ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেন একই বিভাগের মাস্টার্স প্রথম সেমিস্টারের এক ছাত্রী।

একই বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থী হওয়ায় তাদের মধ্যে পরিচয় ছিল। সেই পরিচয়ের সুবাদে এবং কাছাকাছি জায়গায় ভাড়া থাকার কারণে তাদের মধ্যে হৃদ্যতা হয়।

ছাত্রীর অভিযোগ, তিনি যখন অনার্স চতুর্থ বর্ষের ছাত্রী তখন ২০১৩ সালের ২৭ জুন সন্ধ্যায় তার বাসায় যান শিক্ষক হাসান এবং প্রলোভন দেখিয়ে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলেন। তাকে বিয়ে করবেন বলে শিক্ষক ওই ছাত্রীর সঙ্গে নিয়মিত শারীরিক সম্পর্ক অব্যাহত রাখেন।

চলতি বছরের ১৬ ফেব্রুয়ারি তিনি হাসানকে বিয়ের প্রস্তাব দেন। কিন্তু এ ব্যাপারটি তিনি নানা কৌশলে এড়িয়ে যান। গত ১৫ জুন ফের ওই বাড়িতে গেলে তাকে আবার বিয়ের কথা বললে শিক্ষক হাসান ‘বিয়ে করবেন না’ বলে সাফ জানিয়ে দেন। এ নিয়ে কোনো রকম কথা বললে তাকে হত্যার হুমকি দেয়া হয় বলেও অভিযোগ ছাত্রীর।