বাল্য বিয়ে: যশোরে বরের মা ও কনের পিতার জরিমানা, মুচলেকায় মুক্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক:
বাল্য বিয়ে দেয়ার অপরাধে বর ও কনের পিতা-মাতাকে জারিমানা দিয়েছেন যশোরের একটি ভ্রাম্যমাণ আদালত। রোববার সকালে তাদের যশোর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুল আরিফ ওই জরিমানা করেন। একই সাথে বর কনে প্রাপ্ত বয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত আলাদা থাকবে বলে উভয়ের অভিভাবকরা আদালতে মুচলেকা দিয়েছেন।
দন্ড প্রাপ্তরা হলেন শহরের মুড়লি তারা মসজিদের পাশের গোলাম রসুলের ভাড়াটিয়া কনের পিতা গোলাম সরোয়ার এবং বরের মা হামিদা খাতুন।
কোতয়ালি থানার ওসি সিকদার আককাছ আলী জানিয়েছেন, মুড়লি তারা মসজিদ এলাকার গোলাম রসুলের বাড়িতে বাড়া থাকে বর কনের পরিবার। বর আব্দুল হক(১৭) একজন গ্যারেজ শ্রমিক। এবং করে হাসনা হেনা (১৩) হাজি মোহাম্মদ মহাসিন স্কুলের ষষ্ট শ্রেণির ছাত্রী। শনিবার সন্ধ্যার দিকে তাদের বিয়ে হবে বলে পুলিশ জানতে পেরে সেখানে যান। কোতয়ালি থানার এসআই সোলায়মান আককাছ সেখানে গিয়ে জানতে পারেন শুক্রবার তাদের বিয়ে হয়ে গেছে। এ দিন ইফতারের পর অনুষ্ঠান হবে। তাদের দুজনকে এবং হাসনা হেনার পিতা গোলাম সরোয়ার এবং আব্দুল হকের মা হামিদা খাতুনকে থানায় নিয়ে আসেন। একই সাথে বাড়ির মালিক গোলাম রসুলকে থানায় নেয়া হয়।
ওসি আককাছ আরো জানিয়েছেন, রাতে তাদের বাড়িরআলার জিম্মায় দেয়া হয়। সকালে তাদের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে নেয়া হয়। উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা বর আব্দুল হকের মা হামিদা বেগমকে ৩ হাজার টাকা এবং কনে হাসনা হেনার পিতা গোলাম সরোয়ারকে ২ হাজার টাকা জারিমান করেন।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুল আরিফ জানিয়েছেন, ‘আর্থিক দন্ডের চেয়ে মূল হলো বর কনের অভিভাবকরা মুচলেকা দিয়েছেন যে-তাদের উপযুক্ত বয়স না হওয়া পর্যন্ত আলাদা রাখা হবে। প্রাপ্ত বয়স হওয়ার পর তাদের অনুষ্ঠান করে তুলে দেয়া হবে।’

যশোরের মণিরামপুরে
ইয়াবাসহ আটক ২

নিজস্ব প্রতিবেদক
র‌্যাব-৬ যশোর ক্যাম্পের সদস্যরা ২২০ পিস ইয়াবাসহ দু’যুবককে আটক করেছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে মণিলামপুর উপজেলার চালুয়াহাটি গ্রামের একটি ইট ভাটার পাশ থেকে তাদের আটক করা হয়েছে। এরা হলো চন্ডিপুর গ্রামের মৃত সেকেন্দার আলীর ছেলে মারুফ মোড়ল (৩২) এবং রামনাথপুর গ্রামের আজিবর খাঁ’র ছেলে শহিদুল ইসলাম খাঁ।
র‌্যাবের এএসপি জিয়াউল হক কতৃক রবিবার পাঠনো এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন, শনিবার বিকিলে গোপন সূত্রে জানতে পারেন দুযুবক ইটরে ভাটার পাশের একটি রেইট্রি গাছের নিচে দাড়িয়ে ইয়াবা বিক্র করছে। সে সময় সেখানে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে ২২০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত ইয়াবার মূল্য ৬৬ হাজার টাকা। এই ঘটনায় মণিরামপুর থানায় একটি মামলা হয়েছে।