সতীঘাটায় কালভার্টের মুখে ও ড্রেনে মাটি, ভোগান্তি চরমে

জাকির হোসেন, কুয়াদা:
যশোর সদরের সতীঘাটা বাহিরমল্লিক গ্রামে একমাত্র পানি নিষ্কাশনের কালভার্টের মুখে ও ড্রেনের মধ্যে মাটি ফেলে ভরাট করায় কয়েক পরিবার চরম ভোগান্তিতে পড়েছে। কয়েকদিনের প্রবল বর্ষণে পানি জমে গ্রামের ২০টি পরিবারের ক্ষতি সাধন হয়েছে।
স্থানীয় সূত্র জানায়, সতীঘাটা বাহিরমল্লিক গ্রামের মৃত মহাতাব বিশ্বাসের ছেলে মাস্টার নওশেরুল আলম মন্টু(৭৮), তালেব আলীর ছেলে নাজির উদ্দীন(৫০), মৃত ওমর আলীর ছেলে ইসমাইল হোসেন(৬৮) ও আব্দুল আজিজ(৪৮) পরস্পর যোগসাজস করে সরকারের নির্মিত পানি নিষ্কাশনের কালভার্টের মুখ ও ড্রেন পরিকল্পিত ভাবে বন্ধ করে দেয়। গত ৪/৫মাস পূর্বে কালভার্টের মুখ বন্ধ করা নিয়ে গ্রামবাসরি সাথে তাদের বাকবিতান্ডার ঘটনা ঘটে। বিষয়টি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, ওয়ার্ড সদস্য বিভিন্ন নেতাদের জানানোর পরও তারা মীমাংসায় ব্যর্থ হন। এক পর্যায়ে, কয়েক দিনের প্রবল বর্ষণে গ্রামের আব্দুল হক(৪৮), আব্দুল মজিদ(৫৫), আতিয়ার রহমান(৬৫), মোশাররফ হোসেন(৪০), হযরত আলী(৫০), আরমান আলী(৩৫), আনার হোসেন(৫৫), এজাহার আলী(৫০), গোলাম রসুল(৭৫), আব্দুল মজিদ খাঁ(৪৮), আজিজ খাঁ(৫০), সলেউদ্দীন(৬৫), আকরাম হোসেন(৪০), এনামুল হক(৩৫), রেজাউল ইসলাম(৩২), ইকরাম হোসেন(৩০), শহীদসহ (৫০) কয়েকজনের বাড়ি পানিতে তলিয়ে যায়। ফলে ওই পরিবারগুলো হাঁস, মুরগী, গরু, ছাগল নিয়ে চরম ভোগান্তিতে পড়ে।