যশোরে নকল চেকসহ আটক দুই জনের বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক :যশোরে জাল চেক দিয়ে টাকা উত্তোলনকালে আটক দুইজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। রোববার রাতে শহরের আরএন রোডস্থ দি প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেডের ম্যানেজার হাসান জাহিদ ওই দু’জনের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় এ মামলা করেন।
আসামিরা হলো, মণিরামপুর উপজেলার মোবারকপুর গ্রামের ফজলুর রহমানের ছেলে সিদ্দিকুর রহমান ও ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার পুরিপোল গ্রামের রবিউল ইসলামের ছেলে নজরুল ইসলাম।
পুলিশ জানায়, আসামিরা সংঘবদ্ধ জালিয়াত চক্রের সদস্য। এর মধ্যে নজরুল ইসলাম এনার্জী সুপার কোম্পানিতে চাকরি করেন। সেই সুযোগে তারা বিভিন্ন লোকজনের কাছ থেকে টাকা লেন দেনের নামে প্রতারনা করে আসছিল বলে একাধিক অভিযোগ রয়েছে। এরই মধ্যে তারা ঢাকার ম্যাগপাই ডিপার্টমেন্টাল স্টোরের নামে জালিয়াতির মাধ্যমে একটি চেক তৈরি করে। গত রোববার দুপুর দেড়টার দিকে তারা দু’জনে ওই চেকের মাধ্যমে টাকা উত্তোলনের জন্য দি প্রিমিয়ার ব্যাংকে যায়। সেখানে ম্যানেজার হাসান জাহিদ চেকটি স্ক্যান মেশিনে দেন। কিন্তু সেই মেশিনে চেকটি জাল বলে প্রমানিত হয়। এসময় সিদ্দিক ও নজরুলের কাছে জানতে চাইলে তারা কোন সদুত্তর দিতে পারেনি। এরপর ব্যাংক কর্তৃপক্ষ থানা পুলিশকে অবহিত করলে পুলিশ তাদের দু’জনকে আটক করে। এরপরই ম্যানেজার হাসান জাহিদ বাদী হয়ে আটক দু’জনের বিরুদ্ধে চেক জালিয়াতির অভিযোগ দেন। ওই অভিযোগের মামলাটি সিডিউল অনুযায়ি দুর্নীতি দমন কমিশন মামলাটির তদন্তের দায়িত্ব পায়। সে কারণে পুলিশ তাদের ওই মামলায় আটক দেখাতে পারেনি। ফলে সোমবার তাদের সন্দেহমূলক ৫৪ ধারায় আদালতে প্রেরণ করেছে। বিচারক তাদের জামিন আবেদন না মঞ্জুর করে জেলহাজতে প্রেরণের আদেশ দিয়েছেন। পরবর্তীতে দুদকের তদন্ত কর্মকর্তা আসামিদের এ মামলায় শ্যোন অ্যারেস্ট দেখাবেন।