কেশবপুরে আ.লীগ-বিএনপির মধ্যে হবে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই

কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি:কেশবপুর পৌরসভার নির্বাচন আজ বুধবার। নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী রফিকুল ইসলাম মোড়ল ও বর্তমান মেয়র বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী আলহাজ্ব আব্দুস সামাদ বিশ্বাসের মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হতে পারে।
কেশবপুর পৌরসভার বর্তমান মেয়র বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী আলহাজ্ব আব্দুস সামাদ বিশ্বাস ২য় মেয়াদে মেয়রের দায়িত্ব পালন করছেন। আব্দুস সামাদ বিশ্বাস ১৯৭৬ সালে ইউনাইটেড পিপলস পার্টির সদস্য হিসেবে রাজনৈতিক অঙ্গণে জাত্রা শুরু করেন। পরবর্তীতে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের হাতে গড়া বাংলাদেশ ন্যাসনাল পার্টি বিএনপির সক্রিয় সদস্য হিসাবে প্রবেশ করেন। তিনি থানা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ছিলেন। পরবর্তীতে থানা যুবদলের সভাপতি ও সদর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৮২ সালে ২৪ মার্চ থানা কমিটি বিলুপ্ত হওয়ায় তিনি দলের আহ্বায়ক কমিটির যুগ্ম-আহ্বায়কের দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৮৭ সালে প্রথম দলের কাউন্সিল অধিবেশনে তিনি থানা কমিটির সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। একই ভাবে ১৯৯২, ১৯৯৬ ও ১৯৯৯ সালের কাউন্সিলে তার যোগ্যতা বলে সাধারণ সম্পাদকের পদটি ধরে রাখেন। বর্তমান তিনি কেশবপুর পৌর বিএনপির সভাপতি ও যশোর জেলা বিএনপির বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন।
পৌরসভা গঠনের পূর্বে তিনি ১৯৮৮ সাল হতে ২০০৫ সাল পর্যন্ত কেশবপুর সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন এবং ২০০৫ সালে নবগঠিত কেশবপুর পৌরসভার প্রথম চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। একই মেয়াদে ২০০৮ সালের ১৪ মে পৌর সভার প্রথম দায়িত্ব গ্রহণ করেন। ২০১১ সালে কেশবপুর পৌর সভার ২য় নির্বাচনে তিনি বিএনপির প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত হয়ে বর্তমানে মেয়রের দায়িত্ব পালন করছেন।
অপরদিকে আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী রফিকুল ইসলাম মোড়ল ১৯৮৪ সালে কেশবপুর থানা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হিসাবে ৩ বছর দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াকালীন ছাত্রলীগের কমিটিতে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৯২ সালে তিনি সরাসরি ভোটে থানা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন এবং একটানা ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৯৬ সালে তিনি থানা আওয়ামী লীগের সর্ব কনিষ্ঠ সদস্য নির্বাচিত হন। বর্তমানে তিনি পৌর আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্যের দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি উচ্চ শিক্ষিত হয়েও কোন চাকরি না করে জনসেবা করার মানসিকতায় পৌর মেয়র পদে নির্বাচন করছেন।
এদিকে পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি ও আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থীর মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে বলে পৌরবাসী ধারণা পোষণ করছেন। এ ব্যাপারে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী আলহাজ্ব আব্দুস সামাদ বিশ্বাস জানান, কেশবপুর পৌরসভার উন্নযন ও অগ্রগতির ধারা অব্যহত রাখার জন্য ধানের শীষ প্রতীকের বিকল্প নেই। অপরদিকে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী রফিকুল ইসলাম মোড়ল জানান, আধুনিক পৌরসভা গঠনে নৌকা প্রতীকের বিকল্প নেই।