অন্তিম শয়ানে কমরেড পাখী

নিজস্ব প্রতিবেদক>
অন্তিম শয়ানে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি যশোর শহর কমিটির সদস্য, জেলা শ্রমিক ফেডারেশনের নেতা কমরেড সাঈদ আনোয়ার পাখী (৫৯)।
মঙ্গলবার বাদ জোহর যশোর শহরের আরএন রোডে মরহুমের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় যশোরের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মী, শ্রমিক, ছাত্র-যুব, ব্যবসায়ী, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতা-কর্মী, নিহতের স্বজন, বন্ধু-বান্ধবসহ নানা শ্রেণি পেশার বিপুল সংখ্যক মানুষ অংশগ্রহণ করেন। এরপর তার মরদেহ ওয়ার্কার্স পার্টি কার্যালয়ে আনা হয়। সেখানে মরহুমের কফিন পার্টির লাল পতাকা দিয়ে আচ্ছাদিত করা হয়।
এখানে মরহুমের কফিনে শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদন করে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি যশোর জেলা কমিটি, শহর কমিটি, বাংলাদেশ ছাত্রমৈত্রী, বাংলাদেশ যুবমৈত্রী, জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন, জাতীয় কৃষক সমিতি, নারীমুক্তি সংসদ, সুরধুনী, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি-সিপিবি, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ, বাংলাদেশের ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগ, বিপ্লবী ছাত্রমৈত্রী, স্পন্দন যশোর, শেকড় যশোরসহ বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন।
পরে ওয়ার্কার্স পার্টির জেলা সভাপতি কমরেড ইকবাল কবীর জাহিদের নেতৃত্বে পার্টি সভ্যরা কমরেড সাঈদ আনোয়ার পাখীকে লাল সালাম জানান।
এখান থেকে মরহুমের কফিন যশোর কারবালায় নিয়ে যাওয়া হয় এবং সেখানেই তাকে সমাহিত করা হয়।
কমরেড সাঈদ আনোয়ার পাখী দূরারোগ্য ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে ঢাকার পিজি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। সেখানেই সোমবার রাত আটটার দিকে তিনি মারা যান। মঙ্গলবার ভোরে তার মরদেহ স্বজনরা যশোরে আনেন।