মহেশপুরকে মাদক মুক্ত ঘোষণায় ওসিকে সাধুবাদ

অসীম মোদক,মহেশপুর>
মাদককে না বলুন,মাদককে ঘৃণা করুনসহ বিভিন্ন স্লোগান নিয়ে প্রতিটি গ্রামে গ্রামের বড় বড় ব্যানার আর ফেস্টুন দিয়ে মাদক থেকে সাবধান করেছেন মহেশপুরবাসীকে। এছাড়া এলাকার বড় বড় বাজারগুলোতে সভা করে মাদক ছেড়ে হাতে বই-খাতা আর কলম তুলে নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন মহেশপুর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আমিনুল ইসলাম বিল্পব।
সম্পতি সাংবাদিকদের নিয়ে থানা চত্তরে এক মতবিনিময় সভায় থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আমিনুল ইসলাম বিল্পব মহেশপুরকে মাদক মুক্ত ঘোষণা করেন। আমিনুল ইসলাম বিল্পব গত ২ ফ্রেরুয়ারি ঝিনাইদহের মহেশপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হিসাবে যোগদান করেন।
যোগদানের পর থেকে তিনি ১০ মাসে প্রায় দেড় কোটি টাকার বিভিন্ন মাদক দ্রব্য উদ্ধার করেছেন। উদ্ধারকৃত মাদক দ্রব্যের মধ্যে রয়েছে ১৪১৩ পিস ইয়াবা,৭৭১ বোতল ভারতীয় ফেনসিডিল, ১১ কেজি গাঁজা ও ১১৩৮ বোতল ভারতীয় ও দেশি চোলাই মদ।
তিনি জানান,গত ফ্রেরুয়ারি মাসে উদ্ধারকৃত মাদক দ্রব্যের মধ্যে রয়েছে ৮৯ বোতল ফেনসিডিল, ১৬০ বোতল মদ, ২০ পিস ইয়াবা, ৬০০ গ্রাম গাঁজা, মার্চ মাসে ৬৫ বোতল মদ, এপ্রিল মাসে ৫০ পিস ইয়াবা, মে মাসে ১৭ বোতল ফেনসিডিল, ৩৯৬ পিস ইয়াবা, ১৫৫ বোতল মদ, ২ কেজি গাঁজা, জুন মাসে ৭৫ বোতল ফেনসিডিল, ৪৪০ বোতল মদ, ৭৫০ গ্রাম গাজা, জুলাই মাসে ৯৩০ পিস ইয়াবা, ২৫০ গ্রাম গাঁজা, ৫৪ বোতল মদ, আগস্ট মাসে ২১৪ বোতল মদ, ৪০ বোতল ফেনসিডিল, ৫৫০ গ্রাম গাঁজা, সেপ্টেম্বর মাসে ২৩১ বোতল ফেনসিডিল, ১২পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, অক্টোবর মাসে ১৪০ বোতল ফেনসিডিল, ৩ কেজি ৩০০ গ্রাম গাঁজা ও নভেম্বর মাসে ১৪০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়েছে।
বিশিষ্ট শিক্ষাবীদ ও মহেশপুর মডেল পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক এবং বর্তমান পৌর ল্যাব মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এটিএম খাইরুল আনাম বলেন, মহেশপুর উপজেলাকে মাদক মুক্ত ঘোষণা দেওয়ায় আমরা খুব আনন্দিত। যে ব্যক্তি গত ৮ মাসে যে পরিমাণ মাদকদ্রব্য উদ্ধার ও আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিকভাবে রেখেছেন তাকে অবশ্যই সাধুবাদ দেওয়া উচিত।
স্বরুপপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান জানান, ওসি হিসাবে মহেশপুরে যোগদানের পর আমিনুল ইসলাম বিপ্লব যে মাদক দ্রব্য মুক্ত এলাকা হিসাবে ঘোষনা দিয়েছেন এর আগে কখনও কোন ওসি এমন ঘোষণা দেননি। শুধুৃ তাই নয় তিনি সুযোগ পেলেই বিভিন্ন ইউনিয়নে মাদক মুক্ত এলাকার গড়ার কাজ করে যাচ্ছেন।
৬নম্বর ও ৭নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর কাজী আতিয়ার রহমান আতি ও আবুল হাশেম পাঠান বলেন, আগে কখনও থানার কোন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মহেশপুরকে মাদক মুক্ত করার ঘোষণা দূরের কথা মাদক মুক্তির স্বপ্নও মহেশপুরবাসীকে দেখাতে পারেননি বরং মাদক ব্যবসায়ীদের সাথে সখ্য গড়ে তুলেছেন। বর্তমানে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মহেশপুরে যোগদানের পর মাদক মুক্ত করে স্কুল, কলেজ ছাত্রদের হাতে বই খাতা আর কলম হাতে তুলে নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে আসছেন।
উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ড. আব্দুল মালেক গাজী জানান, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব সব সময়ই মাদক মুক্ত সমাজ গড়ে তোলার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। সম্প্রতি তিনি মহেশপুরকে মাদক মুক্ত ঘোষনা করায় আমি খুব আনন্দিত।