শহিদ বুদ্ধিজীবী দিবসে চাঁচড়া বধ্যভূমিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি, আলোচনাসভা> পরাজিত শক্তির চক্রান্ত এখনো অব্যাহত

নিজস্ব প্রতিবেদক>

শহিদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে বুধবার যশোরে নানা কর্মসূচি পালিত হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে ছিল চাঁচড়া বধ্যভূমি স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পার্ঘ অর্পন ও আলোচনাসভা।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেছেন, স্বাধীনতার ৪৫ বছর পরেও সেই পরাজিত শক্তি এখনো চক্রান্ত অব্যাহত রেখেছে। বাঙালী জাতিকে দাবিয়ে রাখতে দেশে এবং বিদেশে কাজ করছে তারা। বক্তারা বলেন, ট্রাইব্যুনালের সংখ্যা বৃদ্ধির মাধ্যমে চক্রান্তকারী আর রাজাকারদের বিচার কাজ দ্রুত সম্পন্ন করতে হবে। ৩০ লাখ শহিদের রক্তে স্নাত এবং হিন্দু-মুসলিম-বৌদ্ধ-খ্রীষ্টান সকলের এই বাংলাদেশে যারা মুক্তিযুদ্ধের অসাম্প্রদায়িক চেতনাকে বিশ্বাস করেনা তাদের বসবাসের অধিকার নেই।

সন্ধ্যায় টাউন হল ময়দানের রওশন আলী মঞ্চে এই আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ওআইসিটি) পারভেজ হাসান।

প্রধান অতিথি ছিলেন যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর আব্দুস সাত্তার। বিশেষ অতিথি ছিলেন যশোর পৌরসভার মেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টু। বক্তব্য রাখেন, মুক্তিযোদ্ধা সালেহা বেগম, জেলা সিপিবির সভাপতি আবুল হোসেন সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি একরাম উদ দ্দৌলা, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি ডি এম শাহিদুজ্জামান, জেলা মহিলার পরিষদের সাধারণ সম্পাদক তন্দ্রা ভট্রাচার্য্য ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সুকুমার দাস।

এদিকে দিবসটি স্মরণে জেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, পেশাজীবী, সাংস্কৃতিক সংগঠনের উদ্যোগে পালিত হয় নানা কর্মসূচি। সকাল ৮ টার সময় চাঁচড়া বধ্যভূমি স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পার্ঘ অর্পন করেন বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। এতে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসক ড. হুমায়ুন কবীর এবং পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে শ্রদ্ধার্ঘ অর্পন করেন। যশোর সদর আসনের সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ডক্টর আব্দুস সাত্তার, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম মেম্বার পীযুষ কান্তি ভট্রাচার্য্য, পৌরমেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টু, জেলা আওয়ামী লীগ, জেলা বিএনপি, জাসদ, ওয়ার্কার্স পার্টি, সিপিবি, বাসদ, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, জেলা শিল্পকলা একাডেমী, প্রেসক্লাব যশোর, যশোর সাংবাদিক ইউনিয়ন (জেইউজে), যশোর জেলা সাংবাদিক ইউনিয়ন, উদীচী, যশোর সাহিত্য পরিষদ, সুরবিতান সঙ্গীত একাডেমী, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, এমএম কলেজ, মহিলা কলেজ, মহিলা পরিষদ, আইডিইবিসহ বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে বধ্যভূমি স্মৃতিস্তম্ভে পুস্পস্তবক অর্পন করা হয়।