সাউথখালীতে নির্মাণাধীন বেড়িবাঁধে নদী শাসন ব্যবস্থার দাবিতে মানববন্ধন ও সমাবেশ

আ. মালেক রেজা, শরণখোলা >
বাগেরহাটের শরণখোলায় সিডর বিধ্বস্ত সাউথখালীতে নির্মাণাধীন বেড়িবাঁধে নদী শাসন ব্যবস্থা রাখা ও ভূমি অধিগ্রহনকৃত জমির মালিকদের ক্ষতিপূরণের টাকা দ্রুত প্রদানের দাবিতে এক কিলোমিটারব্যাপী মানববন্ধন শেষে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ২০০৭ সালের ১৫ নভেম্বর সিডরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের ৩৫/১ পোল্ডারের শরণখোলা উপজেলার উত্তর সাউথখালী, দক্ষিণ সাউথখালী, বগী, তাফালবাড়ি, খুড়িয়াখালী, রায়েন্দা, রাজৈর, খোন্তাকাটা, কুমারখালীসহ বলেশ্বর নদী তীরের বিভিন্ন পয়েন্টের বেড়িবাঁধ ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। পরবর্তীতে সরকার উদ্যোগ গ্রহন করে ৩৫/১ পোল্ডারের ৬২.২ কিমি. এলাকার বেড়িবাঁধটি আধুনিক, টেকসই উঁচুর করে নির্মাণের। সম্প্রতি ওই কাজের জন্য ৩শ’ কোটি টাকা বরাদ্দ দিলে চায়নার একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান প্রকল্পের কাজ শুরু করে। কিন্তু প্রকল্পে নদী শাসনের পর্যাপ্ত ব্যবস্থা না রেখে বেড়িবাঁধের কাজ শুরু হলে সিডর বিধ্বস্ত সাউথাখালীবাসীর মাঝে ব্যাপক বিরূপ প্রতিক্রিয়া শুরু হয়। তারা নদী শাসন অন্তর্ভূক্তকরণ কমিটির ব্যানারে আন্দোলন সংগ্রাম শুরু করে। সম্প্রতি ওই কমিটি সাংবাদিক সম্মেলন ও প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করেছেন।
মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টায় দক্ষিণ সাউথখালীতে (গাবতলা) দু’দফা দাবিতে এক বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মানববন্ধনে সাউথখালী ও রায়েন্দা ইউনিয়নের হাজার হাজার নারী ও পুরুষ অংশগ্রহন করে। শেষে আন্দোলন কমিটির আহ্বায়ক ও ইউপি চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান মিলনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন কমিটির প্রধান সমন্বয়ক সাংবাদিক নজরুল ইসলাম, যুগ্ম আহ্বায়ক অধ্যাপক আকন আলমগীর, আবুল হোসেন নান্টু, ফরিদ খাঁন মিন্টু, সদস্য ইমরান হোসেন রাজিব, শহীদুল ইসলাম খাঁন, ইউপি সদস্য আ. আজিজ খলিফা, হালিম শাহ, জাকির হোসেন ও রিয়াদুল পঞ্চায়েত প্রমুখ।