হেতালখালী নাসিরাবাদ দাখিল মাদ্রাসার সুপারের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

শ্যামনগর (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি >
মঙ্গলবার উপজেলা প্রেসক্লাবের সামনে উপজেলার হেতালখালী নাসিরাবাদ দাখিল মাদ্রাসার সাবেক সভাপতি ময়নুদ্দীন এর দুর্নীতির বিরুদ্ধে ৫শতাধিক ব্যক্তির উপস্থিতিতে বিশাল মানবন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মাদ্রাসার সুপার আব্দুল আজিজের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ৮ নম্বর ঈশ্বরীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান অ্যাড. শোকর আলী।
তিনি বলেন, উপজেলার ধূমঘাট গ্রামের নাসির উদ্দীনের পুত্র জিএম ময়নুদ্দীন ১৯৯৩ সাল থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত ওই মাদ্রাসার সহ-সভাপতি থাকাকালিন মাদ্রাসার আধাপাকা ফোরকানিয়া মাদ্রাসা ভবনটি মাদ্রাসা প্রধানের নিষেধ সত্বেও ভেঙে নিয়ে নিজে আত্মসাত করেন। ৪টি শ্রেণিকক্ষ বিশিষ্ট সেমি পাকা ঘরের যাবতীয় সরমঞ্জামাদি আত্মসাত করে। ১টি ডাইনিং ঘরও তিনি রোজার মাসে ভেঙে নিজে কাজে লাগান। মাদ্রাসা ও লিল্লাহ বোর্ডিং এর ৫ একর জমির ফসল ও হারির টাকা বিগত ১৯৯৪ সাল থেকে অদ্যাবধি আত্মসাত করে যাচ্ছেন। ২য় বার ২০১০ সাল হতে ২০১৫ সাল পর্যন্ত সভাপতি থাকাকালিন সময়ে মাদ্রাসার সমুদয় জমির ফসল ও হারির টাকা আত্মসাত করেছে। ওই সময় ৪ জন শিক্ষক নিয়োগ করে ১১ লাখ টাকা আত্মসাত করেছে। তার আত্মসাতকৃত মোট অর্থের পরিমাণ প্রায় ২৫ লাখ টাকা। তিনি আরো বলেন, শুধু তাই নয়, বর্তমানে সভাপতি না থাকার কারণে বর্তমান কমিটি ও শিক্ষকদের বিরুদ্ধে পর পর ৬টি মিথ্যা ও বানোয়াট মামলা করেছে, যা আজও চলমান। মানববন্ধন শেষে মাদ্রাসার সুপার আব্দুল আজিজ স্বাক্ষরিত একটি স্মারকলিপি উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর প্রদান করা হয়।