কপিলমুনিতে স্বামীর পরকীয়ায় স্ত্রীর আত্মহত্যা!

কপিলমুনি প্রতিনিধি>
স্বামীর পরকীয়ায় অভিমান করে আত্মাহুতি দিয়েছেন দু’সন্তানের জননী রেহানা পারভীন (২৬)। সোমবার স্বামীর বাড়িতে দুপুর ৩টার দিকে কীটনাশক পান করে ৯বছরের শিশু পুত্র নয়ন ও ৩ বছরের কন্যা আঁখিকে রেখে মহা প্রয়াণে পাড়ি জমিয়েছেন। তার আত্মহত্যার খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকাবাসীর মধ্যে শোকের ছায়া নেমে আসে।
স্থানীয়রা জানান, কপিলমুনির পার্শ্ববর্তী নগরশ্রীরামপুর গ্রামের আকরাম হোসেন অরফে লেদ আকরাম একই গ্রামের মনু বাজাদারের স্বামী পরিত্যাক্তা কন্যা ২সন্তানের জননী আম্বীয়া খাতুন (৩৭) এর সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে। পরকীয়ায় বাধা দিলে স্বামী আকরাম রেহানার উপর বিভিন্নভাবে নির্যাতন শুরু করে। পিতার দৈন্যতার কারণে আকরামের নানা অত্যাচার রেহানা নীরবে সহ্য করে আসছিল। কিন্তু আম্বিয়ার সাথে স্বামীর পরকীয়ার চরম সীমায় পৌঁছলে করায় তা সহ্য করতে না পেরে মনের দুঃখে সে কীটনাশক পান করে। ওই দিনই তাকে চিকিৎসার জন্য তালা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মৃত্যুর কোলে ঢুলে পড়ে।
এবিষয়ে জানতে চাইলে কপিলমুনি পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ বরকত হোসেন বলেন, ‘ঘটনাটি আমি শুনেছি, মৃতদেহ ময়না তদন্তের ব্যবস্থা করা হচ্ছে’।