মংলা বন্দরে ডুবন্ত জাহাজ সরিয়ে নিতে সময় ১৫ দিন

মংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি>
মংলা বন্দরের পশুর নদীর হাড়বাড়িয়া এলাকায় ডুবে যাওয়া সিমেন্ট তৈরির কাচামাল বোঝাই লাইটার জাহাজ ‘এমভি সেবা’ আগামী ১৫দিনের মধ্যে অপসারণে জাহাজের মালিককে নির্দেশনা দিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। খুলনাস্থ মেসার্স খান অ্যাসোসিয়েট নামে প্রতিষ্ঠানটির ওই লাইটার জাহাজটি গত রোববার রাত সাড়ে ৮শ’ মেট্রিক টন সিমেন্টের কাচামাল নিয়ে পশুর নদীতে ডুবে যায়।
জাহাজের মালিক মনিরুজ্জামান খাঁন বাবু জানান, ডুবন্ত লাইটার জাহাজটি অপসারণে ইতিমধ্যে খাঁন জাহান আলী নামে একটি স্যালভেজ প্রতিষ্ঠানকে নিয়োগ করা হয়েছে। বুধবার সকাল থেকে ডুবন্ত লাইটারটি উদ্ধার কাজ শুরু করা হবে।
বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাস্টার কমান্ডার এম ওয়ালি উল্ল্যাহ জানান, লাইটার মালিক পক্ষকে নির্দেশনার পাশাপাশি প্রয়োজনীয় যে কোন সহযোগিতা করা হবে।
মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার বিভাগ জানায়, বন্দরের পশুর চ্যানেলের হাড়বাড়িয়ার ৪ নম্বর এ্যাংকোরেজে অবস্থানরত এমভি ‘আতিকিএসবি’ নামক বিদেশি জাহাজ থেকে স্লাগ-বাল্ক (সিমেন্ট তৈরির কাজে জাহাজে আমদানিকৃত ঢালাই পণ্য) বোঝাই করার সময় লাইটার জাহাজ এমভি সোবা তলা ফেটে গেলে জাহাজের মাস্টার জাহাজটি দ্রুত চালিয়ে মূল চ্যানেলের বাইরে চরের দিকে চালাতে থাকে। চরের কাছাকাছি যেতেই জাহাজটি পুরোপুরি নদীতে নিমজ্জিত হয়। বর্তমানে ডুবন্ত লাইটারটি মূল চ্যানেলের বাইরে নদীর কিনারে চরে আটকে রয়েছে। ভাটার সময় লাইটারটির আংশিক জেগে থাকলেও জোয়ারে পুরোপুরি নিমজ্জিত থাকছে।