সাম্য ও সম্প্রীতির ইফতার মসজিদে-১০> বেজপাড়া তালতলা মসজিদের ইফতার আয়োজনে থাকে সকলের অংশ গ্রহণ

মারুফ কবীর>
পবিত্র রমজান মাসের একটি অনন্য দৃষ্টান্ত মসজিদে ইফতার। কাজের ব্যস্ততার জন্য অনেক সময় বাড়িতে পৌঁছানোর আগে ইফতারের সময় হয়ে যায়। এমন পরিস্থিতিতে এসকল মুসাফির মসজিদে ইফতার সেরে নেন। মসজিদগুলোর ইফতারে এক কাতারে যোগ দেন নানান শ্রেণী পেশার মানুষ। যশোর শহরের ও শহরতলীর প্রায় প্রতিটি মসজিদে সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতির এই ইফতারের আয়োজন থাকে। মসজিদ কমিটির আয়োজনে, মসজিদের আশেপাশের মানুষের সহায়তায় এসকল মসজিদে ইফতারের আয়োজন হয়।
গতকাল সরেজমিনে শহরের বেজপাড়া তালতলা জামে মসজিদে গিয়ে দেখা যায় ইফতার করছেন অর্ধশত মুসাফির। মহল্লা কেন্দ্রীক মসজিদের মধ্যে এখানে ইফতারে মুসাফিরের সংখ্যা ভালোই হয় । মসজিদের মোয়াজ্জেম হাফেজ ওমর ফারুক বলেন, রমজান মাসজুড়ে মুসাফিরদের জন্য ইফতারের ব্যবস্থা থাকে । সম্পূর্ন দানের ওপর চলে মুসাফিরদের ইফতার আয়োজন। ইফতার বন্টনের কাজে মসজিদের খাদেম , স্থানীয় যুবক ও মসজিদের পরিচালনা কমিটির লোকজন সহায়তা করেন। তাছাড়া তদারকির দায়িত্বে থাকেন মসজিদ কমিটির সদস্যরা । তবে অনেক সময় ইফতারি কেও না দিলে সে ক্ষেত্রে মসজিদ কমিটি ইফতারের ব্যবস্থা করেন। এতে খরচ হয় এক হাজার টাকা। ইফতার খরচের অর্থ মসজিদ কমিটির সদস্যরা বেশিরভাগ দিয়ে থাকেন। তাছাড়া আশপাশের এলাকার লোকেরাও নগদ অর্থ দান করেন। তারা মসজিদ কমিটির লোকেদের সাথে কথা বলে নগদ অর্থ অথবা নিজেরাই ইফতারির ব্যবস্থা করেন। মসজিদের খাদেম ফজলুর রহমান বলেন, ইফতার শুরুর আগ মুহূর্তে মুসাফিরে সংখ্যা বেড়ে যায়। মসজিদ কমিটির অনেকে মুসাফিরদের সাথে ইফতারে সামিল হন। তাছাড়া স্থানীয় অসহায়, এতিম শিশু , ভ্যান ও রিকশা চালক ইফতার করেন মসজিদে এসে।