ব্রাজিলের বিরুদ্ধে আর্জেন্টিনার আকাঙ্ক্ষিত জয়

 ক্রীড়া প্রতিবেদক >কোচ হিসেবে জর্জ সাম্পাওলির অভিষেকটা ভালোই হয়েছে। ফুটবলের ‘সুপার ক্ল্যাসিকো’ খ্যাত ম্যাচে তার দল আর্জেন্টিনা দারুণ জয় ঘরে তুলেছে। imgঅস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে এই লড়াইয়ে প্রথমার্ধে এক গোলে এগিয়ে যায় মেসিরা। শেষ পর্যন্ত ১-০ গোলের জয় নিয়েই মাঠে ছাড়ে আর্জেন্টিনা।

আজ অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে অনুষ্ঠিত এই প্রীতি ম্যাচের প্রথমার্ধের ইনজুরি সময়ে আর্জেন্টিনার পক্ষে একমাত্র গোলটি করেন দলটির ডিফেন্ডার গ্যাব্রিয়েল মারকাদো।
ম্যাচে অবশ্য ব্রাজিলও গোল করার মতো বেশ কয়েকটি সহজ সুযোগ পেয়েছিল, কিন্তু কাজে লাগাতে পারেনি একটিও। বিশেষ করে ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচে ফিরতে মরিয়া হয়ে নামে তারা। চমৎকার কয়েকটি সুযোগও তৈরি করে। কিন্তু ভাগ্য সুপ্রসন্ন ছিল না বলে তা গোলে পরিণত করতে পারেনি পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। তাই হেরেই মাঠ ছাড়তে হয়েছে তাদের।
এই ম্যাচে ব্রাজিল তাদের মূল তারকা নেইমারকে ছাড়াই মাঠে নেমেছে। এ ছাড়া মার্সেলো ও ক্যাসেমিরোকে টানা না খেলিয়ে বিশ্রামে দেওয়া হয়েছে।
অন্যদিকে জুভেন্টাসের হয়ে ফর্মের তুঙ্গে থাকা ডিফেন্ডার দানি আলভেজকেও রাখা হয়নি হলুদ জার্সিধারীদের দলে। তবে এক বছর পর সেলেসাওদের স্কোয়াডে ফিরেছেন ডেভিড লুইস। এ ছাড়া ম্যানচেস্টার সিটির তারকা স্ট্রাইকার গ্যাব্রিয়েল জেসুসকে দলে রেখেছেন কোচ টিটে।
তবে ব্রাজিলের বিপক্ষে পুরো শক্তির দল নিয়েই নেমেছে আর্জেন্টিনা। লিওনেল মেসি তো রয়েছেনই। সঙ্গে জুভেন্টাস তারকা পাওলো দিবালা, গঞ্জালো হিগুয়াইন, পিএসজির অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়াও রয়েছেন স্কোয়াডে। তবে বাদ পড়েছেন ম্যানচেস্টার সিটির তারকা সার্জিও আগুয়েরো।
এই জয়ে বিশ্বকাপের বছাই পর্বের পরের ম্যাচগুলোর আগে আত্মবিশ্বাস খুঁজে পাবে আর্জেন্টিনা। বিশ্বকাপ বাছাইয়ে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলে আর্জেন্টিনার অবস্থান এখন পঞ্চম। সরাসরি বিশ্বকাপে খেলতে হলে তাদের পরের চারটি ম্যাচ জিততেই হবে।
বিশ্বকাপ বাচাইয়ে পরের ম্যাচগুলোতে আার্জেন্টিনা মুখোমুখি হবে উরুগুয়ে, ভেনিজুয়েলা, পেরু ও ইকুয়েডরের। আগস্টে পরের ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ উরুগুয়ে।