যশোরে কয়েকটি রাস্তা উদ্বোধন সাংসদ নাবিলের> উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আবারও নৌকাকে বিজয়ী করতে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক>
যশোর-৩ সদর আসনের সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ বলেছেন, ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে খুন করার পর থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত দেশে স্বাধীনতাবিরোধীরা ক্ষমতায় ছিল। এই ২১ বছরে তারা বাংলাদেশকে নব্য পাকিস্তান বানায়। সেই রকম অবস্থা থেকে আজকে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশকে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ে তোলার লক্ষ্যে কাজ করা হচ্ছে।
শনিবার দুপুরে যশোর সদরের খাজুরা থেকে তেজরোল স্কুল পর্যন্ত প্রায় এক কিলোমিটার সড়ক পাকাকরণের উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।
সংসদ সদস্য কাজী নাবিল সারাদেশে বর্তমান সরকারের উন্নয়নের ফিরিস্তি তুলে ধরে বলেন, ‘দুই মাসের মধ্যে দেশের অন্যতম বৃহৎ যশোরের শেখ হাসিনা আইটি পার্ক উদ্বোধন হবে। এটি চালু হলে এ অঞ্চলের প্রায় দশ হাজার মানুষের কর্মসংস্থান হবে। খুব শিগগির ভৈরব নদের খনন ও বিউটিফিকেশনের কাজ শুরু হবে।’
তিনি বলেন, উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হলে আবারও নৌকা মার্কায় ভোট দেয়ার কোন বিকল্প নেই।
যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, সরকারি এমএম কলেজ, মেডিকেল কলেজ, শামসুল হুদা স্টেডিয়ামসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে উন্নয়নমূলক কাজের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘প্রত্যেক এমপি স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে এলাকার রাস্তাঘাট, বিদ্যুৎ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মসজিদ-মন্দির ইত্যাদি উন্নয়নের জন্যে পাঁচ বছরে বরাদ্দ পান ২০ কোটি টাকা। কিন্তু মন্ত্রী, সচিবসহ প্রধান প্রকৌশলীর সঙ্গে যোগাযোগ করে আমি এই সাড়ে তিন বছরে ৭২ কোটি টাকা বরাদ্দ করিয়েছি। যশোর সদরে ৩০ থেকে ৪০টি রাস্তার কাজ করা হচ্ছে। এ অঞ্চলের উন্নয়নে আরো ৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ প্রাপ্তির কথা রয়েছে।’
যশোর সদরের লেবুতলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ আয়োজিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন দলের ইউনিয়ন সভাপতি বাহাউদ্দিন মাস্টার।
স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আলিমুজ্জামান মিলনের সঞ্চালনায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর জহুরুল ইসলাম, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ফারুক আহমেদ কচি, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান মিন্টু, যশোর পৌরসভার কাউন্সিলর মোকসিমুল বারী অপু, কাউন্সিলর আজিজুল ইসলাম, বন্দবিলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হামিদ ডাকু, যশোর শহর যুবলীগের আহ্বায়ক মাহমুদুল হাসান মিলু, সদর উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মাজহারুল ইসলাম মাজহার, জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ফয়সাল খান প্রমুখ।
এর আগে বেলা ১১টায় সংসদ সদস্য যশোর-খুলনা মহাসড়কের বকচর এলাকায় রাস্তা সংস্কার কাজ পরিদর্শন করেন। এই মহাসড়কের প্রায় ৫১০ মিটার সংস্কার হচ্ছে। মাস ছয়েক আগে এই মহাসড়কের পালবাড়ী থেকে মুড়লী পর্যন্ত প্রায় ছয় কিলোমিটার রাস্তা পুনঃনির্মাণ করা হয়। সম্প্রতি বকচর এলাকায় সড়কের ৫১০ মিটার অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়।
এরপর বেলা ১২টার দিকে তিনি যশোরের খাজুরা পুলিশ ফাঁড়ি পরিদর্শন করেন।