উন্নত দেশ গঠনের জন্য এ অর্থবছরের বাজেটে শিক্ষাখাতে সর্বোচ্চ বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ——– অ্যাড.মনিরুল ইসলাম মনির এমপি

বাবুল আক্তার, চৌগাছা (যশোর)>
নতুন অর্থবছরে শিক্ষাখাতে সর্বোচ্চ বরাদ্দ দেওয়ায় যশোর-২ আসনের সংসদসদস্য অ্যাড. মনিরুুল ইসলাম মনির প্রধানমন্ত্রীর ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার পরিকল্পনায় ২০১৭-১৮ অর্থবছরে যে বাজেট ঘোষণা করো হয়েছে তা বাংলাদেশের জন্য একটি ইতিহাস। ৪ লাখ ২৬৬ কোটি টাকার এই বাজেট দেশের সর্বকালের বৃহৎ বাজেট । জননেন্ত্রী শেখ হাসিনা জানেন যে, ‘যে জাতি যত বেশি শিক্ষিত সে জাতি তত বেশি উন্নত’ তাই শিক্ষিত জাতি গঠন করতে পারলেই উন্নত দেশ গঠন করা সম্ভব। যে কারণে উন্নত দেশ গঠনের জন্য এই অর্থবছরের জাতীয় বাজেটে শিক্ষাখাতে সর্বোচ্চ বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলায় আজ ১ কোটি ৭৩ লাখ মা ঘরে বসেই উপবৃত্তির টাকা পেয়ে যাচ্ছেন। এসএমএসের মাধ্যমে পরীক্ষার ফলাফল জানতে পারা, নতুন শ্রেণীতে ভর্তি হতে পারা এবং প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরে দেশের সকল শিক্ষার্থীদের মাঝে বছরের প্রথম দিন বই বিতরণ জননেন্ত্রী শেখহাসিনা সরকারের সফলতা। শিক্ষাখাতে উন্নয়নের বর্ননা দিতে গিয়ে বলেন, এই উপজেলায় প্রায় ৯ কোটি টাকা ব্যায়ে ৩ টি কলেজের ভবন নির্মান করা হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নতুন ভবন নির্মানের জন্য ৭০ লাখ ৫০ হাজার টাকা বরাদ্ধ দেওয়া হয়েছে। আরো ৫ টি প্রতিষ্ঠানে সংস্কারের জন্য ২০ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া স্কুল, মাদ্রাসা, মসজিদ, মন্দিরিও বর্তমান সরকারের তিন বছরে যে উন্নয়ন হয়েছে তা পূর্বে কোনো সরাকর এত টাকার উন্নয়নের কাজ করেনি’। তিনি আরো বলেন, একইভাবে উপজেলার প্রত্যেকটি ইউনিয়নে রাস্তা পাকা করনসহ বাজার উন্নয়ন, ব্রিজ/কালভার্ট ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ভবন নির্মান কাজ অব্যহত রয়েছে। আরো জানান ২০১৪ থেকে ১৭ সাল পর্যন্ত চৌগাছা উপজেলায় ৫৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ৬১ কি.মি. রাস্তা পাকাকরণ ১২ কোটি টাকা ব্যয়ে ৪০ কি.মি পাকা রাস্তার সংষ্কার, ১০ লাখ টাকা ব্যয়ে একজন অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধার বাড়ি নির্মাণ, ২ কোটি ৩০ লাখ টাকা ব্যয়ে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ, ২ কোটি ৭০ লাখ টাকা ব্যয়ে ৫ টি হাট উন্নয়ন ৩ কোটি ৭৮ লাখ টাকা ব্যায়ে ১১ টি প্রাথমিক বিদ্যালয় সম্প্রসারণ ও মেরামতের কাজ করা হয়েছে।
যশোরের চৌগাছা সরকারি ডিগ্রি কলেজে একাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের নবীণ বরণ ও ২০১৭-১৮ অর্থ বছরের বাজেট শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংসদ সদস্য এ কথা বলেন।
বৃহস্পতিবার সকালে ডিগ্রি কলেজ হলরুমে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভাপতিত্ব করেন কলেজর ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ রফিকুল ইসলাম। সহকারী অধ্যাপক মনিরুজ্জামানের সঞ্চালায় বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন কলেজ পরিচালনা পরিষদের সদস্য ও পৌর মেয়র নূর উদ্দীন আল-মামুন হিমেল, যশোর জেলা পরিষদের সদস্য দেওয়ান তৌহিদুর রহমান। উপস্থিত ছিলেন পাতিবিলা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম মিয়া, সিংহঝুলী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান রেজাউর রহমান রেন্দু, কলেজ পরিচালনা পরিষদের সদস্য মগরেব আলীসহ এলাকার সুধীজন, কলেজের সকল শিক্ষক ও শিক্ষার্থী।