সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ> বাঘারপাড়ায় বেড়াতে এসে মিথ্যা অস্ত্র মামলার আসামি কালীগঞ্জের কয়েকজন

নিজস্ব প্রতিবেদক>
যশোরের বাঘারপাড়ার হুলিহট্ট গ্রামে আত্মীয় বাড়ি বেড়াতে এসে হামলার শিকার হয়েছে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জের দিঘারপাড়া গ্রামের তরিকুল ইসলাম, রুবেল, ওমর ফারুকসহ কয়েকজন। হামলাকারীরা তাদের মারপিট করেই ক্ষ্যান্ত হয়নি, তাদের ধরে অস্ত্র দিয়ে পুলিশে দিয়েছে। হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা ও তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রতাহারের দাবি জানিয়েছে । মঙ্গলবার প্রেসক্লাব যশোরে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেছেন হামলার শিকার রুবেল ও ওমর ফারুকের স্বজনেরা।
লিখিত বক্তব্যে হোসনেয়ারা বেগমের পক্ষে রবিউল ইসলাম বলেন, বাঘারপাড়ার হুলিহট্ট গ্রামের পিয়ারী বেগম, মাসুদুর রহমান, শান্ত, আলতাফ মিয়া ও বুলু বেগম প্রতিপক্ষের হামলায় আহত হয়ে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি হয়। চিকিৎসা শেষে তারা বাড়ি ফিরে আসলে গত ৩ জুলাই হোসনেয়ারা বেগম ও তার ছেলে তরিকুলসহ কয়েকজন তাদের বাড়িতে বেড়াতে যান।
তিনি বলেন, রাতে বাড়ি ফেরার সময় মাঝিয়ালি গ্রামে পৌছালে একদল সন্ত্রাসী তাদের গতিরোধ করে। এসময় তারা তরিকুল, রুবেল, ওমর ফারুকে মারতে মারতে জহুরপুর কদমতলা বাজারে নিয়ে যায়। এরমধ্যে তরিকুল তাদের হাত থেকে পালিয়ে রক্ষা পায়।
তিনি আরও বলেন, হামলাকারীরা মিকাইল, রবিউল, ওমর ফারুক, রুবেলকে মারপিটের পর পুলিশ দিয়ে ধরিয়ে দেয়। তাদের নামে নুর মোহাম্মাদ পাটোয়ারী বাদী হয়ে অস্ত্র আইনে মামলা দিয়েছে। উদ্ধার দেখানো হয়েছে অস্ত্র-গুলি ও হাসুয়া। নুর মোহাম্মদ পাটোয়ারি পরিকল্পিতভাবে তাদের মারপিট করে মিথ্যা অস্ত্র মামলা দিয়েছে। সঠিক তদন্তের মাধ্যমে আটক তিনজনকে মুক্তি ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন তিনি।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন নুরুল ইসলাম, সমছুর রহমান, ওজফা বেগম, চম্পা বেগম, হোসনেয়ারা বেগম প্রমুখ।