যশোরে শিক্ষকদের মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক>
শিক্ষকদের ৫ শতাংশ বেতন বৃদ্ধি, বৈশাখী ভাতা, পূর্ণাঙ্গ উৎসব ভাতা আদায়ের লক্ষ্যে এবং অবসর ভাতা ও কল্যাণ ট্রাস্টের নামে অতিরিক্ত ৪ শতাংশ চাঁদা নেয়ার প্রতিবাদে যশোরে মানববন্ধন করেছেন শিক্ষক কর্মচারী ঐক্য ফ্রন্টের নেতৃবৃন্দ। বৃহস্পতিবার প্রেসক্লাব যশোরের সামনে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। সংগঠনের জেলা সমন্বয়ক অধ্যক্ষ মোয়াজ্জেম হোসেনের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন ঝিকরগাছার গঙ্গানন্দপুর কলেজের অধ্যক্ষ জয়ন্ত কুমার বিশ্বাস, নাভারণ ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ ইব্রাহিম খলিল, বাঘারপাড়া মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ আজগর আলী, চৌগাছা মৃধাপাড়া মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মোস্তাফিজুর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা কলেজের অধ্যক্ষ মঈনুল ইসলাম, আব্দুর রাজ্জাক কলেজের অধ্যক্ষ জেএম ইকবাল হোসেন, চৌগাছার এবিসিডি কলেজের অধ্যক্ষ রেজাউল করিম, আমদাবাদ কলেজের অধ্যক্ষ উজির আলী, শংকরপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম বুলবুল, রূপদিয়া শহীদ স্মৃতি কলেজের অধ্যক্ষ আরিফুজ্জামান, বেনাপোল কলেজের অধ্যক্ষ কামরুজ্জামান, শার্শা বাগআঁচড়া আফিল উদ্দিন কলেজের অধ্যক্ষ রেজাউল করিম, মণিরামপুর মহিলা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ আব্বাস আলী, যশোর এমএসটিপি গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক খায়রুল আনাম, পাঁচবাড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু তাহের, ইসলামীয়া বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রেজাউল হক, প্রিপারেটরী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুস সবুর খান, মাহিদিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আজমিনুর রহমান ও রুদ্রপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মৃণাল কান্তি দে। মানববন্ধনে বক্তারা ৫ শতাংশ বার্ষিক বেতন বৃদ্ধি, বৈশাখী ভাতা, পূর্ণাঙ্গ উৎসব ভাতা, বাড়িভাড়া প্রদানসহ বেসরকারি শিক্ষা জাতীয়করণের দাবি জানান। সেইসাথে অবসর ভাতা ও কল্যাণ ট্রাস্টের নামে অতিরিক্ত ৪ শতাংশ চাঁদা প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়। তা না হলে শিক্ষকরা কঠোর আন্দোলনে যাওয়ার ঘোষণা দেন।