রাস্তায় ধানের চারা রোপন করে প্রতিবাদ

বাবুল আক্তার, চৌগাছা (যশোর) >
যশোরের চৌগাছায় দীর্ঘদিন ধরে উন্নয়নের চেষ্টা করেও গ্রামের একটি সড়ক পাকা না হওয়ায় স্থানীয় সড়কটিতে ধানের চারা লাগিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছেন গ্রামবাসি। প্রবল বৃষ্টিপাতের মধ্যেও গ্রামবাসী ‘বর্ণি বৃত্তিপাড়া থেকে দূর্গাপুর ভায়া গুপিনাথপুর ’ সড়কটিতে ধানের চারা রোপণ করে।
গ্রামের বাসিন্দারা জানান, বর্ষাকাল এলেই কাঁচা এই সড়কটি চাষকৃত বোরো ধানের ক্ষেতের ন্যায় হয়ে যায়। মানুষ চলাচলের একেবারেই অনুপযোগী হয়ে পড়ে সড়কটি। দীর্ঘদিন ধরে সড়কটি উন্নয়নের জন্য বিভিন্নজনের কছে ধর্ণা দিয়েও উন্নয়ন হচ্ছে না। সড়কটি দিয়ে বর্ণি, রাজাপুর, বৃত্তিপাড়া, দুর্গাপুর ও পোড়াদহ এই পাঁচটি গ্রামের লোকজন চলাচল করে। পাঁচটি গ্রামের শিশু শিক্ষার্থীদের প্রায় দু’কিলোমিটার হেটে নগরবর্ণি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও প্রাথমিক বিদ্যালয়, বর্ণি দাখিল মাদ্রাসা এবং পুড়াপাড়ার কাটগড়া হাইস্কুল ও কলেজে যাতায়াত করতে হয়। এছাড়া ইউনিয়ন পরিষদ ও উপজেলার সাথে যোগাযোগ স্থাপনেও গ্রামের মানুষের ভরসা এই সড়কটি। অথচ সড়কটি উন্নয়নে কোন পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে না। তাই ক্ষুব্ধ হয়েই গ্রামের সাধারন মানুষ সোমবার সকালে সড়কটিতে ধানের চারা রোপন করে দেয়।
ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আজিজুর রহমান জানিয়েছেন, ‘বিক্ষুব্ধ হয়ে সোমবার সকালে স্কুল শিক্ষার্থী ও গ্রামবাসী সড়কটিতে ধানের চারা লাগিয়ে দিয়েছে।’
সুখপুকুরিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি তোতা মিয়া জানান, ‘সড়কটির দুই পাশে পাকা হলেও মাঝখানে ৭৮২ মিটার সড়ক কাঁচা। সেখানে বর্ষাকালে একেবারেই চলাচলের অনুপযোগী। এটি এলজিইডির সড়ক। এখানে ইউনিয়ন পরিষদের করার কিছু নেই।’
এ বিষয়ে চৌগাছা উপজেলা প্রকৌশলী আব্দুল হামিদ জানান, ‘ সড়কটি ডিপিপিভূক্ত হলে আমরা উন্নয়ন করব। আর যদি না হয়ে থাকে তাহলে এমপি সাহেবের সাথে পরামর্শ করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’