যশোরে সরকার ফুডে জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক>
যশোর সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুরের সরকার ফুডের কারখানায় অভিযান চালিয়ে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। কারখানায় নোংরা পরিবেশ ও অবৈধভাবে কারখানা পরিচালনার অভিযোগে মামলা দিয়ে জরিমানা করা হয়। শহরের ধর্মতলার একটি ফার্মেসিতে নিষিদ্ধ ওষুধ বিক্রির অপরাধে দোকান মালিককে জরিমানা করা হয়েছে। অপরদিকে আলাদা ভ্রাম্যমাণ আদালত যশোর-বেনাপোল সড়কের লাউজানিতে চেকপোস্ট বসিয়ে মোটরযান আইনে ৬টি যানবাহনের চালকের নামে মামলা দিয়ে জরিমানা আদায় করা হয়। সোমবার পরিচালিত এ ভ্রাম্যমাণ আদালতের নেতৃত্ব দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো.আনিসুর রহমান, আরিফুর রহমান, আব্দুল্লাহ আল মাহফুজ ও নাজনীন সুলতানা।
আদালতের পেশকার শেখ জালাল উদ্দীন জানিয়েছেন, দুপুর আড়াইটার দিকে সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুরের সরকার ফুডের কারখানায় অভিযান চালায় আদালত। এসময় দেখা যায় পণ্যের মোড়কে উৎপাদন ও মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখ নেই। কারখানায় নোংরা পরিবেশ, ক্ষতিকর রং ব্যবহার, বিএসটিআই, পরিবেশ, ফায়ার সার্ভিস ও কারখানা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতরের লাইন্সেস নেই। অবৈধভাবে কারখানা পরিচালনার অভিযোগে মালিক একরামুল সরকারের নামে মামলা দিয়ে ১০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। একই সাথে বিপুল পরিমানে মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্য ও রং জব্দ করে ধ্বংস করা হয়।
বেলা ১১টার দিকে যশোর-বেনাপোল সড়কের লাউজানিতে চেকপোস্ট বসিয়ে বিভিন্ন যানবাহনের কাগজপত্র পরীক্ষা করে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় প্রয়োজনীয় কাগজপত্র না থাকায় দুইটি বাস, তিনটি মোটরসাইকেল ও একটি প্রাইভেটকারের চালককের নামে মামলা দিয়ে মোট ৫ হাজার ৯শ’ টাকা জরিমানা করা হয়।
দুপুর ২টার দিকে আরেকটি ভ্রাম্যমাণ আদালত শহরের ধর্মতলা এলাকার একটি ফার্মেসিতে অভিযান চালায়। অভিযানে ওই ফার্মেসি থেকে নিষিদ্ধ ওষুধ জব্দ করা হয়। এ অপরাধে ফার্মেসি মালিক বাকি বিল্লাহর নামে মামলা দিয়ে ২ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করে আদালত। অভিযানকালে পেশকার মোফাজ্জল করিম ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।