যশোরের প্রবীণ কম্পিউটার অপারেটর ইদ্রিস আলীর ইন্তেকাল

প্রেসবিজ্ঞপ্তি>
যশোর আলিয়া মাদ্রাসা ঈদগাহ ময়দানে পবিত্র ঈদুল আজহার নামাজ পড়ার সময় প্রবীণ কম্পিউটার অপারেটর ইদ্রিস আলী মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণে ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহে…রাজিউন)। ইদ্রিস আলী ছিলেন যশোরের মুদ্রণ জগতে সর্বপ্রথম কম্পিউটার কম্পোজ অপারেটর। ১৯৮৮ সালে যশোরের বলাকা প্রেসে তিনি কাজ শুরু করেন। পরে ১৯৯০ সালে ঊষা কম্পিউটার, রিতু প্রিন্টার্স অবশেষে যশোর নেতাজী সুভাষ চন্দ্র রোডে হোটেল আমিন ভবনের নীচতলায় এ্যাসেস গ্রাফিক্স নামে একটি কম্পিউটার কম্পোজ প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করতেন। যশোরে বর্তমানে যারা মুদ্রণ জগতে কম্পিউটার কম্পোজ করেন তাদের অনেকেই ইদ্রিস আলীর শিষ্য।
ইদ্রিস আলীর আকস্মিক মৃত্যুতে যশোরের মুদ্রণ জগতের নেতৃবৃন্দ তার বাড়িতে ছুটে যান। পরে গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী থানার মছড়া বাজার গ্রামে তার দাফন সম্পন্ন হয়। ইদ্রিস আলীর মৃত্যুতে যশোর জেলা প্রেসমালিক সমিতি, শহর প্রেস মালিক সমিতির পক্ষ থেকে আব্দুল মান্নান, ফজলে রাব্বী মোপাসা, অশোক কুমার রায়, শাহিন শা রানা, শফিউর রহমান, নুর ইসলাম, তিতাস আহমেদ, রওশন সাহিদ, ফিরোজ আলম তোতাসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ এবং যশোর প্রেস শ্রমিক ইউনিয়নের আব্দুল মান্নান, বাচ্চু ও আবু জাফর বাচ্চু এবং কম্পিউটার প্রতিষ্ঠান সমূহের মালিকগণ গভীর শোক প্রকাশ ও তার পরিবারবর্গের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করেছেন। সদালপী ইদ্রিস আলী মৃত্যুকালে স্ত্রী, দুই পুত্র, এক কন্যা ও অসংখ্য বন্ধু ও গণগ্রাহী রেখে গেছেন।