দেশি বিদেশি মদের নকল তৈরি হচ্ছে যশোরে, কারবারী জগদীশ আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক>
দেশি ও বিদেশি বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মদ নকল হচ্ছে যশোরে। আর এই কারবারের সাথে জড়িত একজনকে আটক করেছেন মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের যশোর সদর সার্কেলের সদস্যরা। তার নাম জগদীশ মজুমদার (৩৯)। গতকাল বুধবার বেলা ১২টার দিকে শহরের পুরাতনকসবা বিবি রোডস্থ জিয়াউর রহমান বিল্টুর বাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়। জগদীশ ওই বাড়িতে ভাড়া থাকেন। তার কাছ থেকে মদ তৈরির রেকটিফাইট স্পিরিট, রং ও গাঁজা উদ্ধার করা হয়েছে।
মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর ক সার্কেলের পরিদর্শক মোশারফ হোসেন জানিয়েছেন, বেজপাড়ার পূজা মন্ডপ এলাকার নিতাই চন্দ্র মজুমদারের ছেলে জগদীশ দীর্ঘদিন ধরে নকল দেশি ও বিদেশি মদের কারবার করে আসছে। সে পুরাতন কসবা বিবি রোডের বিল্টুর বাড়ি ভাড়া নিয়ে থাকে এবং সেখানেই নকল মদ তৈরি করে বাজারে বিক্রি করে। বিদেশি বিভিন্ন ব্র্যান্ডে খালি মদের বোতল সংগ্রহ করে তার মধ্যে নকল মদ ভরে বিক্রি করে। জগদীশ এক সময় কেরু কোম্পানির মদের সরবরাহকারী ছিল। সেখান থেকে বিতাড়িত হওয়ার পর সে এখন নিজে নকল মদ তৈরি করছে।
বুধবার গোপন সূত্রে সংবাদ পেয়ে ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়েছে। এবং সেখান থেকে ১০ লিটার রেকটিফাইট স্পিরিট, নকল মদ তৈরির রঙ এবং ২৫ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করা হয়েছে। এই ঘটনায় কোতয়ালি থানায় একটি মামলা হয়েছে।
এদিকে একটি সূত্র জানিয়েছে, জগদীশ একসময় কেরু কোম্পানির মদ বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করতো। সেই পরিচয়ের সূত্র ধরে এখন কেউ তাকে ফোন দিলে সে ভেজাল মদ সরবরাহ করছে। এছাড়া যশোরে অনুমোদিত কেরু কোম্পানির মদের দোকানে পুলিশ কড়াকড়ি আরোপ করায় ভেজাল মদের কারবারিরা সক্রিয় হয়ে উঠেছে।
এদিকে কোতয়ালি থানার এসআই জামিল আহমেদ মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে পালবাড়ি রয়েল কমিউটিনি সেন্টারের সামনে থেকে ২শ গ্রাম গাঁজাসহ সোহরাব হোসেন নামে এক যুবককে আটক করেছে। সে সদর উপজেলার সুজলপুর গ্রামের মোতাহার হোসেনের ছেলে।
অন্যদিকে কোতয়ালি থানার এএসআই হোসেন আলী বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে দড়াটানাস্থ সোনালী ব্যাংকের এটিএম বুথের সামনে থেকে ৫৬ পিস ইয়াবাসহ শফিকুল ইসলাম রুবেল নামে এক যুবককে আটক করেছেন। রুবেল শহরের পূর্ব বারান্দীপাড়ার মৃত শামছুল হকের ছেলে।