যশোরের ঘুরুলিয়ায় অবৈধ দস্তা সার কারখানায় দেড় লাখ টাকা জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক:যশোর সদরের ঘুরুলিয়ার এআর অ্যাগ্রো কেমিকেল কোম্পানির অবৈধ দস্তা সার কারখানায় অভিযান চালিয়ে দেড় লাখ টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত । সার ব্যবস্থাপনা আইনে মামলা দিয়ে এ জরিমানা আদায় করা হয়। বুধবার পরিচালিত এ ভ্রাম্যমাণ আদালতের নেতৃত্ব দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো.আনিসুর রহমান।
আদালতের পেশকার শেখ জালাল উদ্দিন জানিয়েছেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ভ্রাম্যমাণ আদালত এআর অ্যগ্রো কেমিকেল কোম্পানির দস্তা সার কারখানায় অভিযান চালায়। এআর অ্যাগ্রো কেমিকেল কোম্পানির সার কারখানায় দস্তা সারের প্যাকেটে মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য প্রদান করে জনগনের সাথে প্রতারণা করছে । এছাড়া আমেরিকান সুপার জিং সার নিজের কারখানায় তৈরি করে চিনের তৈরি লিখে বাজারজাত করা হয়। সারের প্যকেটে উৎপাদন ও মেয়াদোত্তীণের্র তারিখ বেশি লেখা হচ্ছে, বিভিন্ন ব্রান্ডের দস্তা সারের প্যাকেটে ট্রেডমার্ক কর্তৃপক্ষের অনুমোদন নেই। একই সাথে কারখানা পরিচালনার জন্য প্রয়োজনীয় কলকারখানা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শকের ছাড়পত্র নেই, অগ্নিনির্বাপক সিলিন্ডার থাকলেও মেয়াদ উর্ত্তীণ। কারখানায় উৎপাদিত সারের মান পরীক্ষার জন্য কোন ল্যাব ও কেমিস্ট নেই। উৎপাদিত সার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরে ছাড়পত্র ছাড়াই বাজারজাত করা হয়। কৃষি সস্প্রসারণ কার্যালয় তথ্য মতে কারখানায় সার উৎপাদন বন্ধ থাকার কথা থাকলেও রাতের অন্ধকারে চালু রেখে দস্তা সার তৈরি করে আসছিল কর্তৃপক্ষ। এসব অভিযোগে সার কারখানার মালিকর রাজুর ভাই বুলবুল আহম্মেদের নামে সার ব্যাবস্থাপনা আইনে মামলা দিয়ে দেড় লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।এসময় ভেজাল ৫০ প্যাকেট সার জব্দ করে ধ্বংস করা হয়।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর যশোরের কর্মকর্তা গৌতম কুমার শীল ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য।