মণিরামপুরে মাদ্রাসা সুপারের কাণ্ড!

নিজস্ব প্রতিবেদক, মণিরামপুর>দীর্ঘ ২৭ বছর পর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জমি নিজের নামে করে নেয়ার গোপন তথ্য বেরিয়ে পড়েছে মণিরামপুরের শমসেরবাগ দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাও.শওকত আলীর বিরুদ্ধে। মাদ্রাসা সুপারের এহেন কর্মকাণ্ড ফাঁস হওয়ায় এলাকাবাসীর মাঝে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হোসেন ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের দাবি জানিয়ে জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্ঠ দপ্তরগুলোতে অভিযোগ করেছেন।

চেয়ারম্যান আবুল হোসেন জানান, তার নিজ এলাকায় শসসেরবাগ দাখিল মাদ্রাসাটি স্থাপিত হয় ১৯৮৬ সালে। মাদ্রাসাকরণে ওই সময় মাদ্রাসার নামে আকবর আলী জমাদ্দার নামের এক ব্যক্তি ১ একর ২ শতক জমি দলিল করে দেন। কিন্তু অতি লোভী মাদ্রাসা সুপার মাও.শওকত আলী নিজেই সম্পাদক সেজে এলাকার লিয়াকত আলী নামের এক ব্যক্তির কাছে মোটা অংকের বিনিময়ে ৬০ শতক জমি অতি গোপনীয়তার সাথে দলিল সম্পাদন করে দেন। ২৯/১০/১৯৯০ তারিখে সম্পাদনকৃত দলিল নং ৯৯৭৮। যা সম্পূর্ণ বেআইনি বলে লিখিত অভিযোগে দাবি করা হয়। দীর্ঘ ২৭ বছর পর মাদ্রাসা সুপার শওকত আলীর এহেন কর্মকান্ড এলাকায় জানাজানি হওয়ায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে এলাকাবাসীর মাঝে। ক্ষুব্ধ এলাকাবাসীর ভয়ে মাদ্রাসা সুপার শওকত আলী গা ঢাকা দিয়েছে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছে। তারা বিষয়টি তদন্ত পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন। এ বিষয়ে জানতে মুঠোফোনে মাদ্রাসা সুপার শওকত আলীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোন মন্তব্য না করেই ফোনটি কেটে দেন।