যশোরে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে দুই মাসে অর্ধকোটি টাকা জরিমানা আদায়, ৩৪জনকে সাজা

নিজস্ব প্রতিবেদক>
যশোরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আনিসুর রহমান পরিচালিত ভ্রাম্যমান আদালত গত দুই মাসে প্রায় অর্ধ কোটি টাকা জরিমানা আদায় করেছে। চলতি বছরের জুলাই এবং আগস্ট মাসে ১৬৬টি অভিযান পরিচালনা করেছে ওই ভ্রামম্যান আদালত। এই সময়ের মধ্যে বিভিন্ন অপরাধে মোট ৩৪জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড দেয়া হয়েছে।
আদালত সূত্রে জানাগেছে, ম্যাজিস্ট্রেট আনিসুর রহমানের নেতৃত্বে ওই ভ্রাম্যমান আদালত দুই মাসে মোট ৪৭ লাখ ৯৮ হাজার ৬শ’ টাকা জরিমানা আদায় করেছে। শুধু জরিমানা নয়, অপরাধের কারণে ৩৪জনকে ৩দিন থেকে ৬ মাস পর্যন্ত বিনাশ্রম কারাদ- দিয়েছেন। ওই অভিযানে ভোক্তা অধিকার দফতরের সহকারী পরিচালক সোহেল শেখ ছিলেন। কারণ বেশিরভাগ অভিযান পরিচালিত হয়েছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে ২০০৯ এর আওতায়।
জানাগেছে, ভ্রাম্যমান আদালত যেসব স্থানে অভিযান চালিয়েছে তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো, নকল লুব্রিকেন্ট কারখানা, ভেজাল চা পাতা, বনফুলের নকল সেমাই কারখানা, সোনালী মুরগী দেশি বলে বিক্রি, মরা গরুর মাংশ বিক্রি, ইউরিয়া সার দিয়ে চিপস তৈরির কারখানায়, মাদ্রাসার ভেতরে অবৈধ ইলেকট্রিক কারখানা, করাত কল, মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান, অবৈধ কিøনিক ও ডায়াগনেস্টিক সেন্টার, ক্ষতিকর রং ব্যবহারকারী বেকারী, ক্ষতিকর ফ্লেভার দিয়ে তৈরি আইসক্রিম কারখানা প্রভৃতি। এছাড়া ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল ও ভারতীয় ভিসা অফিস দালালমুক্ত করা, অভয়নগরের নওয়াপাড়া নদীবন্দরে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ, ভৈরব নদের ৭ কিলোমিটার অবৈধ ভেড়ি, পাটা ও বেড়া উচ্ছদ, কেশবপুরের ভরত ভায়নায় ও সন্ন্যাসগাছায় জমি দখলমুক্ত এবং চৌগাছার ঋষিপাড়ায় অবৈধ গরুর হাট উচ্ছেদ।