যশোরে মাছের ঘের থেকে উদ্ধার হওয়া মরদেহটি কার ?

নিজস্ব প্রতিবেদক>
মাথায় লম্বা চুল। চুলের সাথে ক্লিভ সাটানো রয়েছে। আবার পরনে লাল রংয়ের গেঞ্জি এবং কালো প্যান্ট। পুরুষ না নারী তা বোঝা মুশকিল। এই রকম একটি মানুষের মরদেহ উদ্ধার হয়েছে যশোরের একটি মাছের ঘের থেকে। ওই মাছের ঘেরটি যশোর কোতয়ালি এবং মণিরামপুর থানার মধ্যস্থলে। মণিরামপুর থানা পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করেছে।
যশোর সদর উপজেলার আন্দুলিয়া গ্রামের লোকজন জানিয়েছে, বুধবার দুপুর ১২টার দিকে সদর উপজেলার রূপদিয়া থেকে মণিরামপুরের ঢাকুরিয়ার উদ্দেশ্যে একটি অটো ভ্যানযোগে যাওয়ার সময় এক নারী যাত্রী দেখতে পান ইমন ব্রিকসের সামনে রাস্তার পাশের একটি মাছের ঘেরে একজন পড়ে আছে। তিনি বিষয়টি এলাকার লোকজনকে জানালে ওই গ্রামের লোকজন হাজির হয়ে মরদেহটি ঘের থেকে উপরে উঠান। মরদেহের মুখের আকৃতি দেখে নারী না পুরুষ তা বোঝা যায়নি। অনেকে হিজড়া হিসাবে ধারণা করেন। তার পরনে কালো রংয়ের প্যান্ট এবং লাল গেঞ্জি রয়েছে। আবার মাথার চুল লম্বা। চুলে ক্লিভ সাটানো।
স্থানীয় লোকজন কোতয়ালি থানার অধীনস্থ নরেন্দ্রপুর পুলিশ ফাঁড়িকে সংবাদ দিলে ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই সোহরাব হোসেন ঘটনাস্থলে পৌছান। একই সাথে সেখানে হাজির হন মণিরামপুর থানার এসআই তাপস কুমার। ঘটনাস্থলটি মণিরামপুরের মধ্যে হওয়ায় মণিরামপুর থানা পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়।
এসআই তাপস কুমার জানিয়েছে, বোঝা যাচ্ছে না লাশটি নারী না পুরুষের। তা ছাড়া লাশের শরীরে আঘাতের কোন চিহ্ন নেই। এখন ডাক্তার বলতে পারবে মৃত্যুর কারণ এবং সে নারী না পুরুষ। লাশটির ময়নাতদন্তের জন্য যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।