ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা যুবককে,জনবিক্ষোভে রক্ষা

নিজস্ব প্রতিবেদক:ইয়াবা দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে ব্যর্থ হয়েছে পুলিশের তিন সোর্স। জনতার প্রতিবাদের মুখে পুলিশ তাকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়। ঘটনাটি ঘটেছে, ঝিকরগাছা উপজেলার নির্বাসখোলা ইউনিয়নের শিত্তরদাহ বাজারে।
স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সোমবার রাত সাড়ে ৭ টার দিকে আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের সামনে থেকে সেলিম রেজা (২৭) কে পুলিশ আটক করে। তার দেহ তল্লাশি করে কিছু পাওয়া না গেলেও রেখে যাওয়া বাইসাইকেলের সিটের নিচে থেকে চুইংগাম লাগানো ৫ পিস ইয়াবা বের করে আনেন শিত্তরদাহ পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই ফারুক হোসেন। এসময় তাকে ফাঁড়িতে নেয়ার চেষ্টা করলে স্থানীয় জনগণ প্রতিবাদ করেন। তাদের দাবি-সেলিম রেজা নিরীহ মানুষ। সে রাজমিস্ত্রীর কাজ করে। ঘটনার দিনও সে বিকেল ৫ টা পর্যন্ত কাজ করে শিত্তরদায় বাজার করতে এসেছিল। কোন অনৈতিক বা মাদকের সাথে সেলিম রেজার কোন সম্পর্ক নেই। সে আশিংড়ী গ্রামের পলাশ হোসেনের পুত্র।
স্থানীয়রা জানিয়েছেন, শিত্তরদাহ গ্রামের পুলিশ সোর্স সামছের আলীর পুত্র মোরশেদ আলী, মশিয়ার রহমানের ছেলে কবীর হোসেন ও মৃত আলী হোসেনের ছেলে বিল্লাল হোসেন ফাঁসানো চেষ্টা করেছিল সেলিমকে। ঘটনার আগে তিনজনকে পর্যায়ক্রমে সেলিমের বাইসাইকেলের উপর বসে থাকতে দেখা গেছে।
পুলিশ সেলিমকে আটক করে ফাঁড়িতে নিয়ে গেলে শতাধিক জনতা মিছিল করে ফাঁড়ি ঘেরাও করে। এসময় পুলিশ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের কাছে সেলিমকে দিয়ে দেয়।
এ ব্যাপারে এএসআই ফারুক হোসেন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাকে আটক করা হয়েছিল এবং তার বাইসাইকেল থেকে ইয়াবা উদ্ধারও হয়েছে। পরে স্থানীয়রা জানায়, সে নিরীহ মানুষ। তাই তাকে স্থানীয়দের কাছ থেকে লিখিত নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়।