তালিকা থেকে বাদ যাচ্ছে ১৫ লাখ ভোটার

তালিকা থেকে বাদ যাচ্ছে ১৫ লাখ ভোটারস্পন্দন নিউজ ডেস্ক:চলতি বছর ২৫ জুলাই থেকে ৯ আগস্ট পর্যন্ত বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটারদের তথ্য সংগ্রহ করা হয়। তথ্য সংগ্রহের পর ২০ আগস্ট শুরু হয়ে তিন ধাপে ৫ নভেম্বর এসব নাগরিকদের নিবন্ধন কাজ শেষ হয়। আর বিশেষ ৩২টি এলাকার জন্য এ নিবন্ধন কার্যক্রমের সময় বাড়িয়ে ২০ নভেম্বর পর্যন্ত করা হয়। আর এ নিবন্ধন কার্যক্রমে ৩৩ লাখ ২৮ হাজার নতুন ভোটার নিবন্ধিত হয়েছে। পাশাপাশি ভোটার তালিকা থেকে ১৫ লাখ মৃতভোটারের নাম কর্তন করা হচ্ছে। ইসি সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়।

সূত্র জানায়, এবার মোট ৩৩ লাখ ২৮ হাজার নতুন ভোটার নিবন্ধিত হয়েছেন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটারের সংখ্যা ১৬ লাখ ৪১ হাজার এবং নারীর ভোটারের সংখ্যা ১৬ লাখ ৮৭ হাজার। এবার পুরুষের চেয়ে ৪০ হাজারের বেশি নারী ভোটার নিবন্ধিত হয়েছেন। এবার ১৮ লাখের মতো মৃত ভোটার চিহ্নিত করা হয়েছিল। পরে সেগুলো যাচাই বাছাই করে ১৫ লাখের মতো ভোটার তালিকা থেকে বাদ দেয়া হবে।

ইসির সহকারী সচিব মো. মোশাররফ হোসেন জানান, ‘২০০৮ সালে ছবিসহ ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম শুরু হওয়ার পর এবার আমরা সব থেকে বেশি সংখ্যক মৃত ভোটারের তথ্য সংগ্রহ করতে পেরেছি। কমিশনের নানামুখী উদ্যোগ গ্রহণ করার পরই এই সাফল্য এসেছে।’

মাঠ পর্যায় থেকে মঙ্গলবার পর্যন্ত কমিশনে আসা তথ্য অনুযায়ী,  এ বছর হালনাগাদে ৩৩ লাখ ২৮ হাজার নতুন ভোটার অন্তর্ভুক্ত হচ্ছেন ভোটার তালিকায়। এছাড়া ২০১৫ সালের আগাম তথ্যের ভিত্তিতে ১ জানুয়ারি ২০১৮ তারিখে ভোটার তালিকায় যুক্ত হবে আরও ৯ লাখ ৬২ হাজার জন। এতে হালনাগাদে মোট ভোটার সংখ্যা দাঁড়ায় ৪২ লাখ ৯০ হাজার জন।

এছাড়া এবার ভোটার তালিকা হালনাগাদে এ পর্যন্ত তালিকা থেকে ১৫ লাখ মৃতভোটারের নাম কর্তন করা হলে এবার হালনাগাদে নিবন্ধিত ভোটার সংখ্যা  ২৭ লাখ ৯০ হাজার জন। এর সঙ্গে ইসির নিবন্ধনে থাকা ১০ কোটি ১৮ লাখ যোগ করা হলে আগামী সংসদে ভোট দেবেন ১০ কোটি ৪৫ লাখ ৯০ হাজার।

এদিকে দশম জাতীয় সংসদে মোট ভোটার ছিল সংখ্যা ছিল ৯ কোটি ১৯ লাখ ৬৫ হাজারের মতো। এখন ১০ কোটি ৪৫ লাখ ৯০ হাজার থেকে দশম সংসদে ভোটর সংখ্যা বাদ দিলে দাড়ায় ১ কোটি ২৬ লাখ ২৫ হাজার। এরা আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রথমবারের মতো ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

অবশ্য সারা বছর যেহেতু ভোটার হওয়ার সুযোগ রয়েছে তাই এই সংখ্যার কিছু কমবেশি হবে বলে জানান ইসি কর্মকর্তারা।

ইসির তথ্য অনুযায়ী, ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মোট ভোটার ছিল ৮ কোটি ১০ লাখ ৮৭ হাজার ৩ জন। এরদের মধ্যে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন ৭ কোটি ৬ লাখ ৪৮ হাজার ৪৮৫ জন যা মোট ভোটারের ৮৭ দশমিক ১৩ শতাংশ।

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত দশম জাতীয় সংসদে মোট ভোটার ছিল ৯ কোটি ১৯ লাখ ৬৫ হাজার ১৬৭ জন। এদের মধ্যে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন ১ কোটি ৭৩ লাখ ৯২ হাজার ৮৮৭ জন ভোটার। এই নির্বাচনে মোট ৩০০ আসনের মধ্যে ১৫৩টি আসনেই প্রার্থীরা বিনা ভোটে জয়লাভ করে।

আগামী ২ জানুয়ারি হালনাগাদ করা খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হবে। দাবি, আপত্তি ও সংশোধনের জন্য দরখাস্ত দাখিলের শেষ তারিখ ১৭ জানুয়ারি। দাবি, আপত্তি ও সংশোধন নিষ্পত্তির শেষ তারিখ ২২ জানুয়ারি।

দাবি, আপত্তি ও সংশোধনীর জন্য দাখিল করা দরখাস্তের ওপর গৃহীত সিদ্ধান্ত সন্নিবেশনের শেষ তারিখ ২৭ জানুয়ারি এবং চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হবে ২০১৮ সালের ৩১ জানুয়ারি।