জার্মানির শরণার্থীবান্ধব মেয়রের উপর ছুরি হামলা

স্পন্দন আন্তর্জাতিক ডেস্ক : জার্মানির আল্টেনা শহরের মেয়র আন্দ্রেয়াস হলস্টাইনকে ছুরি দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যায় চালানো এই হামলায় তিনি খুব বেশি জখম হননি। হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়ার পর তিনি বাড়ি ফিরে গেছেন। মেয়র আন্দ্রেয়াস শরণার্থীবান্ধব হিসেবে পরিচিত। জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়চে ভেলে এ খবর জানিয়েছে।
জার্মানির আল্টেনা শহরের মেয়র আন্দ্রেয়াস হলস্টাইন।হামলার সময় মেয়র হলস্টাইন একটি কাবাবের দোকানে ছিলেন। হামলাকারী মাতাল অবস্থায় ছিলেন। হামলার আগে তিনি হলস্টাইনের কাছে জানতে চান, তিনিই মেয়র কিনা।

আল্টেনা শহরটি নর্থরাইন ওয়েস্টফেলিয়া রাজ্যের অন্তর্গত। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী আরমিন লাশেট মেয়রের উপর হামলাকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে আখ্যায়িত করেছেন। তিনি বলেন, ঘটনার সময় হামলাকারী অভিবাসন সম্পর্কিত মন্তব্য করেন।

উল্লেখ্য, শরণার্থীদের দেখাশোনায় ভালো কাজের জন্য তার শহর চলতি বছর জার্মান সরকারের পুরস্কার পেয়েছে। ১৭ হাজার অধিবাসীর আল্টেনা শহর ৩৭০ জন শরণার্থীকে আশ্রয় দিয়েছে। অর্থাৎ, কোটার চেয়ে ১০০ জন বেশি শরণার্থী গ্রহণ করেছে শহরটি। আল্টেনার অনেক বাসিন্দা শরণার্থীদের নিজেদের বাড়িতে আশ্রয় দিয়েছেন। কেউ আবার বিনামূল্যে শরণার্থীদের জার্মান শিখিয়েছেন।

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে ৫৭ বছর বয়সি হলস্টাইন বলেন, ‘এখনও বেঁচে আছি বলে আমি খুশি।’

জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেলের সিডিইউ দলের সদস্য হলস্টাইন। তার উপর হামলার ঘটনায় ম্যার্কেল মর্মাহত হয়েছেন। মুখপাত্রের মাধ্যমে ম্যার্কেল বলেন, ‘মেয়র আন্দ্রেয়াস হলস্টাইনের উপর ছুরি হামলার ঘটনা শুনে আমি আতঙ্কিত। তবে তিনি আবার পরিবারের কাছে ফিরে যেতে পারবেন শুনে স্বস্তিবোধ করছি।’

নর্থরাইন ওয়েস্টফেলিয়া রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী আরমিন লাশেট সরকারি কর্মকর্তাদের উপর হামলা ও রাজ্যে চরম ডানপন্থীদের দৌরাত্ম্য বেড়ে যাওয়ার সমালোচনা করেছেন তিনি। বলেছেন, ‘নর্থরাইন ওয়েস্টফেলিয়ায় ঘৃণা ও সহিংসতার কোনও স্থান নেই। বৈচিত্র্য আমাদের রাজ্যের একটি অলংকার।’

উল্লেখ্য, বছর দুয়েক আগে কোলনের মেয়র হেনরিয়েটে রেকারের উপর হামলা হয়েছিল।